দেবলীনা সুর

Debolina Sur  (7)জন্ম: ১৫ ফেব্রুয়ারী ১৯৮৫ সালে, যশোর জেলায়।
বাবা: বিশ্বনাথ সুর (অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা )।
মা: শ্রাবণী সুর (যশোরের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, প্রধান শিক্ষক, মাধ্যমিক বিদ্যালয়)

গানের হাতে খড়ি:
পারিবারিকভাবে গানের সূচনা। পরবর্তীতে যশোরের অর্ধেন্দু প্রসাদ বন্দ্যোপাধ্যায় , অশোকা দত্ত, শাহ মোঃ গোলাম মোর্শেদ। শান্তিনিকেতনে সঙ্গীতে পড়ার সময়ে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, বাসবী মূখার্জ্জী, গোরা সর্বাধীকারি, কোলকাতার রাজ্যশ্রী ঘোষ এর কাছে শাস্ত্রীয় সঙ্গীত, তৃষিত চৌধুরি, সংঘ মিত্র, ইন্দ্রানী ঘোষ, অগ্নিভ বন্দ্যোপাধ্যায় এর কাছে সঙ্গীত শিক্ষা করেছেন।

পড়াশোনা:
যশোরের ক্যান্টনমেন্ট কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করে ভারতের শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতী বিশ্ব বিদ্যালয়ের সঙ্গীতবিভাগ থেকে রবীন্দ্রসঙ্গীতে প্রথম বিভাগে অনার্স ডিগ্রী, আই সি সি আর স্কলারশীপ নিয়ে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একই বিষয়ে প্রথম বিভাগে মাস্টার্স ডিগী লাভ করেন।

জাতীয় পুরস্কার:
ভারতের তথ্য অধিদপ্তর আয়োজিত “রাজ্য সঙ্গীত ন্যশন্যাল এওয়ার্ড কম্পিটিশনে-২০১২”তে প্রথম স্থান অধিকার, বেঙ্গল বিকাশ প্রতিভা অন্বেষণ-২০০৫, নতুন কুঁড়ি শিশুপুরস্কার-১৯৯৫, সংকেত জাতীয় পুরস্কার-১৯৯৩,
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী আয়োজিত ২০০ জন প্রতিশ্রুতিশীল কন্ঠশিল্পীর অংশগ্রহণে প্রকাশিত ২০টি অডিও সিডি নির্মিত হয় ২০১৩ এর শুরুতে । প্রতিশ্রুতিশীল কন্ঠশিল্পীর ২০০ জনের একজন দেবলীনা সুর পঞ্চগীতি কবির গানের সিডিতে অতুল প্রসাদ সেনের গান করে বাংলাদেশে ফিরে আনুষ্ঠানিকভাবে গানের ভুবনে প্রবেশ করেন।
এ্যালবাম:
দেবলীনা সুরের নিজের লেখা ও সুরে মৌলিক গানের এ্যালবাম জলফড়িং ২০১৪ সালে প্রকাশিত হয়।
রবীন্দ্রসংগীত এর এ্যালবামের কাজ শেষের দিকে এ বছর প্রকাশিত হবে।

বর্তমান কর্মব্যস্থতা:
এন টিভর আজ সকালের গানে, অনুষ্ঠান (নিয়মিত) সঞ্চালনের দায়িত্বে।