একটি কবিতার শূন্য-অসীম-গগন-বিহার : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, পাবলো নেরুদা

ওমর শামস | ৭ december ২০১৫ ৯:৫৭ অপরাহ্ন

neruda-tagore.jpg

১. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর :

কে না পড়েছে, “তুমি সন্ধ্যার মেঘমালা, তুমি আমার সাধের সাধনা” ? না, সবাই পড়েনি। কিন্তু সবাই শুনেছে, গান হিশেবে শুনেছে; কবিতা হিশেবে পড়েনি। এখানে আমরা স্বরবিতান, ১০ রচনাটি1 পড়বো মূল বাংলায়, তারপর স্বয়ং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ইংরেজী অনুবাদে এবং তারপর স্পানীশ অনুবাদে এবং তারপর অন্যান্য অনুরণনে। প্রথমে মূল রচনাটির উপস্থাপন :

তুমি সন্ধ্যার মেঘমালা, তুমি আমার সাধের সাধনা,
মম শূন্যগগনবিহারী।
আমি আপন মনের মাধুরী মিশায়ে তোমারে করেছি রচনা–
তুমি আমারি, তুমি আমারি,
মম অসীমগগনবিহারী॥

মম হৃদয়রক্তরাগে তব চরণ দিয়েছি রাঙিয়া,
অয়ি সন্ধ্যাস্বপনবিহারী।
তব অধর এঁকেছি সুধাবিষে মিশে মম সুখদুখ ভাঙিয়া–
তুমি আমারি, তুমি আমারি,
মম বিজনজীবনবিহারী॥

মম মোহের স্বপন-অঞ্জন তব নয়নে দিয়েছি পরায়ে,
অয়ি মুগ্ধনয়নবিহারী
মম সঙ্গীত তব অঙ্গে অঙ্গে দিয়েছি জড়ায়ে জড়ায়ে–
তুমি আমারি, তুমি আমারি,
মম জীবনমরণবিহারী॥

[ স্বরবিতান, ১০ ]

কবিতাটির গঠন এবং চিত্র-শ্রুতিকল্প বিষয়ে দু-চার কথা। ৩টি স্তবকে রচিত অক্ষরবৃত্ত। যুগ্মশব্দ খুব বেশি নেই – সন্ধ্যা, শূন্য, রক্ত, অঞ্জন, মুগ্ধ । কবিতাটির ধ্বনি যুক্তাক্ষর আঘাত স্তিমিত জয়দেব ধরণের এবং অনুপ্রাসবহুল। ‘তুমি আমারি, তুমি আমারি’ – ৩-বার ব্যবহার হয়েছে । ‘শূন্যগগনবিহারী, অসীমগগনবিহারী’, ‘সন্ধ্যাস্বপনবিহারী, বিজনজীবনবিহারী’, ‘মুগ্ধনয়নবিহারী, জীবনমরণবিহারী’ – দুই-দুই করে তিনটি স্তবকে ৩-বার এসেছে। সমাসবদ্ধ এই শব্দগুলি আধুনিক কবিতার চিত্রকল্প নয়, তবুও এর প্রত্যেকটির মধ্যে একটি ছোট্ট মিনিয়েচার আছে। এবং সেহেতু এই সব শব্দের ভাষান্তর খুব মুশকিল। ‘মেঘমালা’, ‘সাধের সাধনা’, ‘হৃদয়রক্তরাগে তব চরণ দিয়েছি রাঙিয়া’ – এগুলোর অনুবাদও ঝাপসা কিছু করা যাবে, কিন্তু মূল চিত্র, অনুভূতি আনা অসম্ভব। আর, ‘তব অধর এঁকেছি সুধাবিষে মিশে মম সুখদুখ ভাঙিয়া’, একি সম্ভব অন্য ভাষায় বলা?

এবার স্বয়ং রবীন্দ্রনাথকৃত কবিতাটির ইংরেজিতে অনুবাদ, যা ডব্লু বি ইয়েটস-কে উৎসর্গিত Gardener গ্রন্থের ৩০ নম্বর কবিতা। দুটি তুলনা করলেই বোঝা যায় এটি ভাবানুবাদ। অনুবাদ যে যেকোনো ভাষাতেই অসম্ভব, তা আগেই বলেছি এবং কেন। তাছাড়া কবিতার মূল সঙ্গীত হারিয়ে গেছে ভাষান্তরে।

You are the evening cloud floating in the sky of my dreams.
I paint you and fashion you ever with my love longings.
You are my own, my own, Dweller in my endless dreams!
Your feet are rosy-red with the glow of my heart’s desire, Gleaner of my sunset songs!
Your lips are bitter-sweet with the taste of my wine of pain.
You are my own, my own, Dweller in my lonesome dreams!
With the shadow of my passion have I darkened your eyes, Haunter of the depth of my gaze!
I have caught you and wrapt you, my love, in the net of my music.
You are my own, my own, Dweller in my deathless dreams!

[ Gardener, 30 ]

এই ইংরেজির যদি আবার বাংলা করি, তার ৩ লাইনের নমুনা এ-রকম, যার সঙ্গে মূল কবিতার বিস্তর ফারাক :
আমার স্বপ্নের আকাশে তুমি সন্ধ্যার ভাসানিয়া মেঘ।
প্রণয়ের আকাঙ্ক্ষা দিয়ে আমি তোমাকে আঁকি আর গড়ি।
তুমি আমার, তুমি আমার – আমার অনন্ত স্বপ্নের বিহারী।

২. সেনোবিয়া এবং হিমেনেছ :

Gardener, 30 কবিতাটিই ১৯১৭ তে স্ত্রী সেনোবিয়া এবং হুয়ান রামোন হিমেনেছ দু-জনে মিলে স্পানীশে অনুবাদ করেছিলেন ইংরেজি থেকে :
Tú eres la nube crepuscular del cielo de mis fantasías.
Tu color y tu forma son los del anhelo de mi amor.
Eres mía, eres mía, y vives en mis sueños infinitos.
Tienes los pies sonrojados del resplandor ansioso de mi corazón.
Segadora de mis cantos vespertinos !
Tus labios agridulces saben a vino de dolor.
Eres mía, eres mía y vives en mis sueños solitarios.
Mi pasión sombría ha’ obscurecido
Tus ojos, cazdora del fondo de mi mirada!
En la red de mi música te tengo presa amor mío.
Eres mia, eres mía y vives en mis sueños inmortale

তুমি আমার কল্পনার আকাশের গোধূলির মেঘ
তোমার রং আর তোমার গঠন আমার ভালোবাসার আকাঙ্ক্ষার।
তোমার পা-দুটো লাজরক্ত আমার হৃদয়ের জ্বলন্ত সংশয়ে।
হে আমার সন্ধ্যা-সঙ্গীতের সঞ্চয়িতা।
তোমার ঠোঁটদুটো বেদনার সুরা স্বাদে তিক্ত-মধুর।
তুমি আমার, তুমি আমার। তুমি আছ আমার নিভৃত স্বপনের মাঝে।
আমার অন্ধ আবেগ আচ্ছন্ন করেছে তোমার দু-চোখ –
আমার দৃষ্টির গহীনের শিকারী –
আমার সঙ্গীত জালে আবদ্ধ পেয়েছি তোমাকে হে আমার প্রেম।
তুমি আমার, তুমি আমার। তুমি আছ আমার অবিনশ্বর স্বপনে।

৩ পাবলো নেরুদাঃ

এবার আমরা আসছি কবিতার পরশ-পাথরের ঠোকাঠুকিতে। সেনোবিয়া এবং হিমেনেছ অনূদিত ৩০ নম্বর, মানে ‘তুমি সন্ধ্যার মেঘমালা’, কবিতাটি পাবলো নেরুদা পড়েছিলেন এবং এর থেকে গ্রহণ করে আরেকটি প্রেমের কবিতা স্পানীশ ভাষায় লিখেছিলেন। সেই কবিতাটি তাঁর বিখ্যাত কুড়িটি প্রেমের এবং একটি বিষাদের কবিতা নামক গ্রন্থের ১৬ নম্বর কবিতা হিশেবে প্রকাশ পায়। নেরুদার মূল স্পানীশ কবিতাটি এবং তার ইংরেজি অনুবাদ নীচে দেয়া হলো :

En mi cielo al crepúsculo eres como una nube
y tu color y forma son como yo los quiero.
Eres mía, eres mía, mujer de labios dulces,
y viven en tu vida mis infinitos sueños.

La lámpara de mi alma te sonrosa los pies,
el agrio vino mío es más dulce en tus labios:
oh segadora de mi canción de atardecer,
cómo te sienten mía mis sueños solitarios!

Eres mía, eres mía, voy gritando en la brisa
de la tarde, y el viento arrastra mi voz viuda.
Cazadora del fondo de mis ojos, tu robo
estanca como el agua tu mirada nocturna.

En la red de mi música estás presa, amor mío,
y mis redes de música son anchas como el cielo.
Mi alma nace a la orilla de tus ojos de luto.
En tus ojos de luto comienza el país del sueño.

[16, Viente poemas de amor y una canción desesperada ]

এখানে শুনুন পাবলো নেরুদার স্বকণ্ঠে আবৃত্তি ইউটিউবে [ Ctrl + click] এবং তার নীচে এই কবিতার ইংরেজি অনুবাদ।

In my sky at twilight you are like a cloud
and your form and color are the way I love them.
You are mine, mine, woman with sweet lips
and in your life my infinite dreams live.

The lamp of my soul dyes your feet,
the sour wine is sweeter on your lips,
oh reaper of my evening song,
how solitary dreams believe you to be mine!

You are mine, mine, I go shouting it to the afternoon’s
wind, and the wind hauls on my widowed voice.
Huntress of the depth of my eyes, your plunder
stills your nocturnal regard as though it were water.

You are taken in the net of my music, my love,
and my nets of music are wide as the sky.
My soul is born on the shore of your eyes of mourning.
In your eyes of mourning the land of dreams begin.

[Poem 16. Twenty Love Poems and a Song of Desperation ]

এই কবিতাটি প্রকাশের পর চিলির আরেক কবি বিসেন্তে উইদোব্রো নেরুদাকে কবিতা-চোর বলে বেশ হৈ চৈ করেছিলেন। সেনোবিয়া, হিমেনেছ-এর অনুবাদের প্রথম দু-লাইন, Tú eres la nube crepuscular del cielo de mis fantasías. // Tu color y tu forma son los del anhelo de mi amor. আর পাবলো নেরুদা-র কবিতার শুরু, En mi cielo al crepúsculo eres como una nube // y tu color y forma son como yo los quiero – দুয়ের মিল অবশ্য আছে। কিন্তু কৌতুকের ব্যাপার হলো, রবীন্দ্রনাথের মূল বাংলা কবিতা বা তাঁর ইংরেজি অনুবাদেরও এদের থেকে দূরত্ব বহু।

৪. মেটামরফোসিস :

বাংলা কবিতাটির মূল সুর অনুবাদে রবীন্দ্রনাথ-ও রাখতে পারেন নি। সেটা সম্ভব নয়। তবে যা ছিলো উনিশশতকী অনুপ্রাসবিহারী সমাসবদ্ধ ধ্বনিগ্রন্থ – ‘হৃদয়রক্তরাগে’, ‘সন্ধ্যাস্বপনবিহারী’, ‘বিজনজীবনবিহারী’, ‘মোহের স্বপন-অঞ্জন’ – সেগুলো অনুবাদে, অনুরণনে চিত্রকল্পের রূপ নিয়েছে কোনো কোনো ক্ষেত্রে – “The lamp of my soul dyes your feet”। অবশেষে নেরুদার কবিতাটিও মেটামরফোসিসে এক অন্য ব্যঞ্জনা ধারণ করেছে। এবং স্পানীশ গঠনে ও উচ্চারণে স্বরবর্ণ-পৌনপুণিকতার (assonance) অন্য স্বরূপ ধারণ করেছে। নেরুদা তাঁর ঋণ স্বীকার করেছিলেন। কবিতার ইতিহাসে এই ধরণের অনুরণন আরো অনেক আছে, এবং প্রতিটি ভাষায়। কেননা এও এক ধরণের সংজ্ঞা যে, সেটাই ভালো কবিতা যা অন্য একটি ভালো কবিতার জন্ম দিতে পারে।

নির্ঘণ্ট :

১. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, গীতবিতান, বিশ্বভারতী, কলিকাতা

২. Rabindranath Tagore,
http://www.spiritualbee.com/media/tagore-love-poems.pdf

৩.
Rabindranath Tagore , Zenobia Camprubí de Jiménez
Obras De Rabindranath Tagore: El Jardinero… (Spanish Edition) (Spanish) Paperback – November 12, 2011, Nabu Press

৪. Pablo Neruda, Twenty Love Poems and a Song of Despair, translated by W S Merwin, Penguin
৫.
৫.ক El Affaire Neruda- Tagore – Memoria Chilena –
www.memoriachilena.cl/archivos2/…/MC0002197.pdf

৫.খ রাজু আলাউদ্দিন, https://www.facebook.com/notes/618898621488955/
Flag Counter

সর্বাধিক পঠিত

প্রতিক্রিয়া (5) »

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন matin bairagi — december ৮, ২০১৫ @ ১০:৪১ পূর্বাহ্ন

      ওমর শামস-এর লেখাটি শিক্ষনীয়। অনুবাদে ঘটমান সমস্যাগুলো চাক্ষুষ দেখবার সুযোগ হলো। কিন্তু তাতে অবাক হবার কিছু আছে বলে প্রতীয়মান হয় না। একটি বিষয়ের, বিশেষ করে, কবিতা তো বটেই, অনুবাদ হয় একজন অনুবাদকের অভ্যেস রুচি, স্থানিক প্রকাশ রীতি এবং সময় ও স্বাদকে বিবেচনা করে, তবে মূল বিষয় ও সুর যাতে বিলুপ্ত না হয় অনুবাদক সে দিকে অন্তত লক্ষ্য রাখেন। ওমর শামস গবেষক, তিনি লেখালেখি, বিশেষ করে কবিতা, কবিতা বিষয়ক লেখায় আমাদের পূর্ব সময়ের কবিদের অনেক কিছুর সংবাদ নিরন্তর দিচ্ছেন যাতে বর্তমান এবং আগামী উপকৃত হয়। যদিও আগামীটা কেমন হবে এবং কবিতার ভাষা কতখানি বদলাবে সে প্রসংগে এখনও নীরব । শিল্প সাহিত্য আপন ধারায় বিকশিত হতে পারে শিল্পীর স্বাধীনতার পরিমাপের উপরে, এমন নয় যে শিল্পীর উপর সর্বক্ষণ কেউ খড়গ তুলে রেখেছে সেই কারণে তিনি লেখায় সৃষ্টিতে নিজত্বকে নিজের বিশ্বাসের মতো বলতে পারছেন না। ব্যাপারটা হলো সমাজ নিয়ন্ত্রিত হয় অর্থনীতির চাল দ্বারা। আর অর্থনীতি নিয়ন্ত্রন করে রাজনীতির চালবাজি। ফলে স্বাধীনতা ব্যক্তির সংকট সর্বদাই থাকে। ব্যক্তি কখনও প্রচলিত সমাজে পুরোপুরি স্বাধীন নয়, চিন্তায়ও সক্ষম নয় কারণ তার জীবনধারণ ভাবনার উপকরণ, বিষয় ও আশ্বাস সবই ওই সমাজের নিয়মাবলী দ্বারা আবদ্ধ, এমন কী প্রাচীনতা যা সব সমাজে বর্তমান থাকে তাকে কখনো কখনো সংস্কারবাদী এবং প্রগতিবাদীরা বলেন মূল্যবোধ তাও অর্থনৈতিক ব্যবস্থা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত ও পোষকতা পায়। নতুন যা আসবে তাও সেই পথ বেয়ে আসবে, আসতে হবে কারণ বিশ্বপুঁজির দুর্দান্ত দাপট উপেক্ষা করবার বা প্রতিরোধ করে অভ্যস্ত শিল্পরীতির মধ্যে বসবাস করবার উপায় থাকবে না। কবিতা তো নয়ই। কারণ কবিতা এসব ব্যক্তি ভাবনার মধ্যে আবদ্ধ থাকবে কিনা তা বোধহয় ভাববার সময় এসে গেছে। একসময় বা আজও যা আমাদের ভাল লাগছে আগামীর মানুষ থাকবে নতুন অর্থনীতির নিয়মে। সেখানে সব কিছু যে বদলে যাবে তাতে কোন সন্দেহ নেই। আর সাহিত্য হয়ে যাবে পণ্য যা মানুষ কিনবে এবং পড়বে এবং ফেলে দিয়ে চলে যাবে। কিংবা কবিতাই থাকবে না। বুর্জোয়ারা এসব ব্যবসার নিয়মে যা সাহিত্য নয় তাই উঠে আসবে বিজ্ঞাপনের জোরে। বিজ্ঞাপন প্রতিটি মানুষের ঘরে ঢুকে পড়বে এবং সমাজ স্থিরভাবে দুটো ভাগে ভাগ হয়ে যাবে; একভাগ শ্রম বিক্রি করবে একভাগ ভোগ করবে, বিশাল শিল্পদানব গ্রাস করবে মানুষের মননশীলতার দিকগুলো এবং মানুষ থেকে বিচ্ছিন্ন হবে, তখন এই সব ছন্দ তাল লয় মাত্রা এবং মা্ত্রা হিসেব থাকবে কিনা সন্দেহ।

      হ্যাঁ, এসব যেমন ‍বুর্জোয়ারা করে ফেলবে তার অর্থনৈতিক হাতিয়ার দ্বারা, তেমনি মানুষের অদম্য শক্তি যা চিরকাল সকল ষড়যন্ত্র ভেদ করে মানবিকতাকেই প্রতিষ্ঠা দিয়ে এসেছে যা বুর্জোয়ারা হিসেব নিকেশ করে তামাশার মতো করে গ্রহণ করে। ওমর শামস সেদিকে নজর দিতে পারলে নতুনরা উপকৃত হবে। সমাজতো আর পিছনে ফিরবে না, জীবনও না।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Mohammed Dalwar Hassan — december ৮, ২০১৫ @ ১:২৭ অপরাহ্ন

      Really excellent.

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন দীপক — december ১০, ২০১৫ @ ১১:০৮ পূর্বাহ্ন

      আমি মুগ্ধ। আমার ভ্রান্ত ধারণা ছিল, একটি অস্থির সময়ের প্রবাহে বাংলাদেশের জ্ঞান চর্চা ক্ষয়িষ্ণু। আশ্বস্ত হলাম, বাংলাদেশে জ্ঞান চর্চা, বিশ্লেষণ অব্যাহত।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন আফসানা বেগম — december ১০, ২০১৫ @ ৯:০৯ অপরাহ্ন

      চাঞ্চল্যকর গবেষণা এবং উপস্থাপন। মুগ্ধ হলাম পড়ে। যে বিষয়গুলো উঠে এসেছে তা ভবিষ্যতে অনুবাদকদের নজরে থাকবে আশা রাখি। ধন্যবাদ লেখককে।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন omar shams — december ১১, ২০১৫ @ ৩:৩২ পূর্বাহ্ন

      সবাইকে পড়ার ও মত দেবার জন্য অশেষ ধন্যবাদ।

আর এস এস

আপনার প্রতিক্রিয়া জানান

 
প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন:
১. ছদ্মনামে করা প্রতিক্রিয়া এবং ব্যক্তিগত পরিচয়ের সূত্রে করা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না। বিষয়সংশ্লিষ্ট প্রতিক্রিয়া জানান।
২. বাংলা লেখায় ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
৩. পেস্ট করা বিজয়-এ লিখিত বাংলা প্রতিক্রিয়া ব্রাউজারের কারণে রোমান হরফে দেখা যেতে পারে। তাতে সমস্যা নেই।
 


Disclaimer & Privacy Policy  |  About us  |  Contact us

© bdnews24.com