কবিতা

ধর্মাশ্রয়ী কোপ

রাজু আলাউদ্দিন | 29 Nov , 2015  

রক্ত প্রবাহ আরও দূর কোনো রক্তকে ডেকে আনে;
চাপাতি, ছুরি ও আগ্নেয়াস্ত্র ঘাতকের অভিধানে
পাশাপাশি শুয়ে স্বপ্ন দেখছে তোমাকে এবং আমাকে।
কূট-রাজনীতি দুষবে এ ওকে; মামলা তদন্তও
বছরের পর বছর গড়াবে–এ কথা অন্তত
নিশ্চিত। তাই কিভাবে এড়াবে এ ধার্য্য বেদনাকে?

রাষ্ট্রনায়ক, নেতা আর যত বিদ্বান-ক্রীতদাস
ধর্মের আঁচে ছড়িয়ে দিচ্ছে রক্তিম উল্লাস।
আজ তুমি যাকে লাভ ভাবো, কাল সেটাই কি নয় বিষ?
মনে পড়ে কোন্ অজুহাতে গড়ে উঠেছিল আইসিস?

একদা তুমি যে আয়ুধ ছুঁড়েছ প্রতিপক্ষের দিকে
বুমেরাং হয়ে আসে তা এখন তোমারই স্বর্গলোকে।

প্যারিস, সিরিয়া, ফিলিস্তিন আর ইরাক ও ইউরোপ
ধীরে ধীরে খাবে গোটা পৃথিবীকে ধর্মাশ্রয়ী কোপ।
ঘাতক কি জানে ধর্মের নামে দাসত্ব করে কার?
এই পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি ধনদৌলত যার।

Flag Counter


19 Responses

  1. সোহেল হাসান গালিব says:

    রক্ত প্রবাহ আরও দূর কোনো রক্তকে ডেকে আনে;
    চাপাতি, ছুরি ও আগ্নেয়াস্ত্র ঘাতকের অভিধানে
    পাশাপাশি শুয়ে স্বপ্ন দেখছে তোমাকে এবং আমাকে।

    —বেশ ভালো লাগল।

  2. ইকবাল হাসনু says:

    রাজু ভাই,
    খুব সময়োপযোগী।
    ইকবাল হাসনু

  3. saifullah mahmud dulal says:

    অনেক দিন পর রাজুর কবিতা পড়লাম। সময়োপযোগী হলেও খুব শিল্পগুণে সমৃদ্ধ! বিষয়, মিল-মাত্রা, ছন্দ- ভালো লাগলো।

  4. তাপস গায়েন says:

    চাপাতি, ছুরি ও আগ্নেয়াস্ত্র ঘাতকের অভিধানে
    পাশাপাশি শুয়ে স্বপ্ন দেখছে তোমাকে এবং আমাকে।–অসামান্য !!

    সত্যি- ই- তো, কোথায় এসে জড় এবং জীবের চৈতন্যের বিচ্ছেদ, তা কী আমরা জেনেছি ?

  5. Bishad abdullah says:

    Besh valo laglo.

  6. Bishad abdullah says:

    Excellen and True

  7. রাজু আলাউদ্দিন says:

    ঘটনাক্রমে এই প্রথম তিন পংক্তির প্রতি আপনার( সোহেল হাসান গালিব) এবং কবি তাপস গায়েনের ভালো লাগা কেন্দ্রীভূত হওয়ায় মনে পড়ছে বোর্হেসের সেই Dagger নামক কবিতাটি যার দূরবর্তী ছায়া এতে যে-কেউ খুঁজে পাবেন। আপনাদের রুচির উচ্চতায় মুগ্ধতা প্রকাশ করলে আশা করি পরোক্ষে আত্মরতি হবে না। প্রিয় লেখক ইকবাল হাসনু এবং কবি (সাইফুল্লাহ মাহমুদ)দুলাল ভাই, আপনাদের প্রশংসা আমার জন্য নিঃসন্দেহে প্রেরণাদায়ী। কৃতজ্ঞতা আপনাদেরকে। প্রিয় বিষাদ আবদুল্লাহ, আপনার তারিফ আমার জন্য অলংকার হয়ে থাকবে। ধন্যবাদ।

  8. জুনান নাশিত says:

    আজ তুমি যাকে লাভ ভাবো, কাল সেটাই কি নয় বিষ?
    মনে পড়ে কোন্ অজুহাতে গড়ে উঠেছিল আইসিস?
    ————-চমৎকার রাজু ভাই। শিল্পসম্মতভাবে সময়কে তুলে ধরার কৃতিত্বে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

  9. প্রণব আচার্য্য says:

    “একদা তুমি যে আয়ুধ ছুঁড়েছ প্রতিপক্ষের দিকে
    বুমেরাং হয়ে আসে তা এখন তোমারই স্বর্গলোকে। ”

    চমৎকার

  10. Akther says:

    good job Raju, keep it up.

  11. Asad says:

    Its a very simple thinking on modern world.

  12. কবি নির্মলেন্দু গুণ লিখেছিলেন, আমি পাকসার জমিন সাদ বাদ বইটা পড়ার পরই বুঝেছিলাম হুমায়ুন আজাদ কোপ খেতে যাচ্ছে।
    রাজু ভাই, আপনার কবিতা যেমন নান্দনিক, তেমনি সময়োপযোগী। কিন্তু কবিতাটা যেহেতু নিস্কন্ধ ‘আইসিস’ নিয়ে লেখা, এরা তো আর কিছু পড়ে দেখে না। সুন্নি। শুনেই কতল। তাই আপনার কবিতা পড়ে, গুণ দা’র মতো কিছু লিখতে হচ্ছে না আপাত, তবে ওই মুণ্ডুছাড়াদের নিয়ে ভয়টা কিন্তু থেকেই যাচ্ছে।

    কবিতার নান্দনিকতা ছাড়াও যে বিষয় নিয়ে কথা বলা যায়, তা হলো কবিতার বিষয়াভিমুখ। শুধু নান্দনিকতার ফুলঝড়িতে আপনার কবিতা লক্ষ্যাভিমুখ ঠিক রাখতে পেরেছে।
    যেমন, শেষের আট লাইন। শেষ দুই লাইন যেমন ‘ঘাতক কি জানে ধর্মের নামে দাসত্ব করে কার? / এই পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি ধনদৌলত যার। ’
    এতো ভীষণ সত্যি কথা, তারা দৌলতধারীদেরই তাঁবেদারি করে।
    যাই হোক, কবিতায় হয়তো বোর্হেসের দূর-ছায়া পাওয়া যেতে পারে, তবে আশু স্মরণীয় হিসেবে মনে পড়ছে, গ্যুয়েন্টার গ্রাসের ‘যে কথাটি আমাকে বলতে হবে’ কবিতা। তবে আপনার কবিতা সেই বক্তব্যধর্মিতার দিকে যায়নি ।
    ধন্যবাদ রাজু ভাই, চমৎকার কবিতার জন্য। সাধুবাদ।

  13. জাহিদ সোহাগ says:

    বাহ্

  14. রাজু আলাউদ্দিন says:

    প্রিয় কবি জুনান নাশিত, অাপনার ভালো লেগেছে জেনে খুবই অনুপ্রাণিত বোধ করছি। অনেক ধন্যবাদ। প্রিয় প্রণব আচার্য্য,ধন্যবাদ অাপনাকেও ভালো লাগা ব্যক্ত করার জন্য। Thanks Akther, i will.
    Dear Asad, I did not understand actually what did you mean by `simple thinking’. I simply wanted to make complex thing simple, that’s why it looks very simple. Thanks for your comment.
    প্রিয় এহসান,
    গুণদা কি তাই বলেছিলেন? তাহলে ভুল বলেননি। কবির দূরদর্শিতা দিয়ে তিনি ঠিক দেখতে পেয়েছিলেন ভবিষ্যতের ঘটনা। আমার ক্ষেত্রে তেমন সম্ভাবনা আছে বলে মনে করি না, যেহেতু এখানে আমার আক্রমণের লক্ষ্য কোনো ধর্মীয় সম্প্রদায় নয়, বরং ধর্মাশ্রয়ী কোপ। আপনি অবশ্য এই কবিতার নান্দনিকতার দিকটিই বেশি গুরুত্ব দিয়ে দেখেছেন। আমিও চাই সেটা যেন উপেক্ষিত না থাকে। কারণ কবিতাকে শেষ পর্যন্ত শিল্পসফল হয়ে উঠতে হবে, প্রোপাগান্ডা নয়।
    আর হ্যাঁ, বোর্হেসের কথাটা আগেভাগেই বলে ফেলার কারণ কেউ যেন ভেবে না বসেন যে আমি অন্যের ভাণ্ডার তশরুফ করছি। সেটা করিই হরদম; না করলে চলে না। ওটা করেছি অধিকারবোধ থেকে, তবে এই কবিতায় বিষয় ও ট্রিটমেন্টের ভিন্নতার কারণে তা আলাদা হয়ে গেছে বলে মনে হয়। অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।

  15. ML Gani says:

    ” ঘাতক কি জানে ধর্মের নামে দাসত্ব করে কার?
    এই পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি ধনদৌলত যার।”
    -যথার্থ বলেছেন রাজু ভাই |

  16. রাজু আলাউদ্দিনের ‘ধর্মাশ্রয়ী কোপ’ কবিতাটি পড়ে ভালো লাগলো। তিনি সভ্যতার এক বিশেষ সংকটকে তুলে ধরেছেন ছন্দিত পংক্তিমালায়। সাহসী উচ্চারণ। নান্দনিক। মার্ক্সবাদী চিন্তাধারায় পুষ্ট। সমাজ ও সময়ের প্রতি দায়বদ্ধতার বোধ কবির এক মহৎ গুণ। কবিকে অভিবাদন!

  17. যুবায়ের says:

    “রাষ্ট্রনায়ক, নেতা আর যত বিদ্বান-ক্রীতদাস
    ধর্মের আঁচে ছড়িয়ে দিচ্ছে রক্তিম উল্লাস।”

    “ঘাতক কি জানে ধর্মের নামে দাসত্ব করে কার?
    এই পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি ধনদৌলত যার।”

    এই লাইনগুলো খুব বিঁধলো। সময়োপযোগী, সাহসী, সার্থক কবিতা। তবে আমরা আপনাকে আরো অনেকদিন চাই, তাই নিজের কোন ঝুঁকি নিয়েন না!!!

  18. আফসানা বেগম says:

    ‘আজ তুমি যাকে লাভ ভাবো, কাল সেটাই কি নয় বিষ?’… চমৎকার লাগল। আপনার নির্ভিক উচ্চারণ চলুক।
    শুভকামনা।

  19. ‘ধীরে ধীরে খাবে গোটা পৃথিবীকে ধর্মাশ্রয়ী কোপ’ কত কষ্ট পেলে একজন কবিকে এরকম করে ভাবতে হয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.