আত্মহনন

বিনয় বর্মন | ২২ অক্টোবর ২০১৩ ২:৩০ অপরাহ্ন

যখন গিয়েছে ডুবে পঞ্চমীর চাঁদ
মরিবার হলো তার সাধ

-জীবনানন্দ দাশ

এমন মায়াবী রাতে মরে যেতে ইচ্ছে করে
আকাশে রুপোর চাঁদ তীক্ষ্ণ ছুরিফলা
হুহু হুহু কে ডাকে মুহুর্মুহু
কাফনের সাদা মাঠে ধুধু নীল চাষ
মৃগনাভি সৌরভে মাতাল বাতাস
moon-and-death.gif
জল টলমল চোখ নদী কাক হাহাকার
কুয়াশা ধূসর মুখ ভাসা ভাসা গ্রাম
পেঁচকের লালচোখে ভ্রান্ত ইতিহাস
কুকুরের চিৎকারে খান খান রাতের গেলাস
দূরে কোথায় দূরে দূরে বাঁশরির চিক্কন সুর
এমন মাহেন্দ্রক্ষণে সকলেই সুখী হতে পারে
তাকে পেয়ে গেলে মিটে যায় জীবনের সাধ
এমন রহস্যরাত উর্ধ্বলোকে তারার সংকেত
স্নায়ুকোষে আগুন ফাগুন গান সিজোফ্রেনিয়া
এইতো সুযোগ
আকাশ থেকে চাঁদ ঝাঁপ দেয় অতল সাগরে
এক টুকরো ঢেউ শুনশান চরাচর
পরদিন ভেসে ওঠে মৃতদেহ তার
তারপর লাশকাটা ঘর ট্রামের ভেতর
ডাক্তার কেটেকুটে ভালো করে দেখে
হৃৎপিণ্ডে পাওয়া যায় দানা দানা কবিতার বিষ
সেটাই তার মৃত্যুর যথার্থ কারণ
পোস্টমর্টেম রিপোর্টে লেখা আছে তার বিবরণ।

Flag Counter

সর্বাধিক পঠিত

প্রতিক্রিয়া (10) »

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Md. Nuruzzaman Shovon — অক্টোবর ২২, ২০১৩ @ ৩:৩৩ অপরাহ্ন

      The metaphysical existence of Jibananda Das with his natural world. Really heart touching creation. After reading the first part it seems to me that it’s a landscape created by Das himself.

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Manik Mohammad Razzak — অক্টোবর ২২, ২০১৩ @ ৫:১২ অপরাহ্ন

      দারুণ লাগলো বিনয় বর্মন। সুন্দর শব্দ সম্ভারে পূর্ণ পুরো কবিতা। পরতে পরতে ছড়িয়ে আছে জীবন্ত জীবনানন্দ। আপনাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

      মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Shams Hoque — অক্টোবর ২২, ২০১৩ @ ৫:৪২ অপরাহ্ন

      কি করে বুঝাব জ্যোৎস্না হে কবীন্দ্র রুপ্সী বাংলার
      তোমার কলম কেড়ে লিখে যান বিনয় বর্মণ
      এই বাংলার ঘাসে আজো ফুটে ছাপ-চাঁপা-ভাঁট
      বিনয়ের আঁকা ছবি ঘাস ফুল তোমার ললাট
      বাংলার উঠোনে জাগে শালিখ-বিনয় আর শোক
      আজকের এই দিনে স্বেচ্ছা – মৃত্যুর জয় হোক !

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন নূর কামরুন নাহার — অক্টোবর ২২, ২০১৩ @ ৭:৩৮ অপরাহ্ন

      কবিতাটা খুব ভালো লাগলো । জল টলমল চোখ নদী কাক হাহাকার খুব সুন্দর। মানুষের আত্মহননের যে আর্কষণ ও রহস্য তা খুব শৈল্পিকভাবে ছুঁয়ে গেছে।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন matin bairagi — অক্টোবর ২২, ২০১৩ @ ৯:৪৩ অপরাহ্ন

      কবিতাটি আমার খুবই ভালো লেগেছে এজন্য নয় যে আমার প্রিয় মানুষ প্রিয় বন্ধুর লেখা । ভালো লেগেছে এজন‌্য যে কবিতাটি চমৎকার ভাবে উৎরে গেছে অন্যরকম ব্যঞ্জনায় । কবিতাটি বিখ্যাত এবং বাংলা কাব্যের একটি মহৎ কবিতাকে তাৎক্ষণিক মনে করিয়ে দিলেও ‘আত্মহনন’- এ ভিন্ন মাত্রা আছে। কবিতা যাঁর হৃদয়ে বাসা বেঁধে আছে মৃত্যু তাঁর কাছে তুচ্ছতম একটি অনুষঙ্গ, ‘আট বছর আগের এক দিনে’ কবির মৃত্যু ট্রামে নয়, সে কবিতা, কাব্য যা তাঁর সারা হৃদপিন্ডে ছড়িয়ে ছিলো_ যা পাওয়া গেছে বলে আত্মহনন-এ কবির ফরেনসিক রিপোর্ট । মুলত কবির এই মৃত্যু দূর্ঘটনা কিম্বা নানা রটনা হলেও, সৃজনশীল একজন মানুষ যে কতো বেশি সংবেদনশীল, কতো বেশি অনুভূতি প্রবণ তা’ লোভি সমাজ কখনো বুঝতে পারে না। আট বছর আগের একদিন কবিতার বিষয়াবলী,উপমা, উৎপ্রেক্ষা, বাচন ভঙ্গি, বিস্তৃতি, মানুষ. মানুষের জীবন বৈপরীত্য. রাষ্ট্র সমাজের বৈরীতা, জীবন-যাপনের অসুস্থতা ইত্যাদিকে অনুষঙ্গ করে রচিত, আর আত্মহনন এ আছে আরেক রকমের অনুভব, নিগেটিভ নয় পজেটিভ অনুরণন।
      জল টলমল চোখ নদী কাক হাহাকার
      কুয়াশা ধূসর মুখ ভাসা ভাসা গ্রাম
      পেঁচকের লালচোখে ভ্রান্ত ইতিহাস
      কুকুরের চিৎকারে খান খান রাতের গেলাস
      দূরে কোথায় দূরে দূরে বাঁশরির চিক্কন সুর
      এমন মাহেন্দ্রক্ষণে সকলেই সুখী হতে পারে
      তাকে পেয়ে গেলে মিটে যায় জীবনের সাধ
      এমন রহস্যরাত উর্ধ্বলোকে তারার সংকেত
      স্নায়ুকোষে আগুন ফাগুন গান সিজোফ্রেনিয়া
      এইতো সুযোগ
      আকাশ থেকে চাঁদ ঝাঁপ দেয় অতল সাগরে
      এক টুকরো ঢেউ শুনশান চরাচর
      পরদিন ভেসে ওঠে মৃতদেহ তার_

      তবে শেষের দিক দিয়ে কবিতাটি সরাসরি হয়ে পড়ায় শিল্পমান খানিকটা ক্ষুন্ন হয়েছে বলে আমার মনে হয়েছে । সে সময়ান্তরে গ্রন্থবদ্ধ হবার কালে সম্পাদনায় সঠিক মাত্রা পাবে । বন্ধুকে আর ধন্যবাদ দেই কেনো, বলি ভালো থাকুন আরো লিখুন।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Bulbul Sarwar — অক্টোবর ২৩, ২০১৩ @ ১০:২৯ পূর্বাহ্ন

      চমৎকার কম্পোজিশন! ভালো লাগলো।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন মুহাম্মাদ নাসির উদ্দিন — অক্টোবর ২৩, ২০১৩ @ ১১:৪৭ পূর্বাহ্ন

      কবিতাটি অনেক ভালো লেগেছে

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন jahid Lipu — অক্টোবর ২৪, ২০১৩ @ ১২:৫৮ অপরাহ্ন

      হৃৎপিণ্ডে পাওয়া যায় দানা দানা কবিতার বিষ
      সেটাই তার মৃত্যুর যথার্থ কারণ
      পোস্টমর্টেম রিপোর্টে লেখা আছে তার বিবরণ।

      অপূর্ব লেগেছে, শেষের অংশটুকু । সর্বোপরি সুন্দর ।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Dr. Binoy Barman — অক্টোবর ২৫, ২০১৩ @ ২:৫০ অপরাহ্ন

      যারা আমার কবিতা পড়েছেন এবং মন্তব্য করেছেন, তাদের সকলকে জানাই আন্তরিক ধন্যবাদ। জাহিদ লিপু, নুরুজ্জামান, নাসির ভাই, মতিন ভাই, শামস ভাই, মানিক ভাই, বুলবুল ভাই, নূর আপা আমাকে উৎসাহ দিয়ে কৃতজ্ঞ করেছেন। জীবনানন্দ ক্ষণজন্মা কবি। জন্ম-মৃত্যু, জীবনযাপনে মহীয়ান। তাঁর মৃত্যু গ্রীক ট্রাজেডির মতো মর্মস্পর্শী। একমাত্র কবিতাই ধারন করতে পারে তাঁর ম্রৃত্যুগাথা। আমি আমার অক্ষম পংক্তিতে তাঁর মৃত্যুকে স্মরণ করেছি, তাঁর প্রতি অন্তরের শ্রদ্ধা নিবেদন করেছি।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন আবু আফজাল মোহাঃ সালেহ — অক্টোবর ২৮, ২০১৩ @ ৭:০১ অপরাহ্ন

      জীবনানন্দ দাশের ধাঁচে সুন্দর লেখা। উপমার যথার্থ প্রয়োগ।চিত্রকল্পের ব্যবহার চমতকার।

আর এস এস

আপনার প্রতিক্রিয়া জানান

 
প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন:
১. ছদ্মনামে করা প্রতিক্রিয়া এবং ব্যক্তিগত পরিচয়ের সূত্রে করা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না। বিষয়সংশ্লিষ্ট প্রতিক্রিয়া জানান।
২. বাংলা লেখায় ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
৩. পেস্ট করা বিজয়-এ লিখিত বাংলা প্রতিক্রিয়া ব্রাউজারের কারণে রোমান হরফে দেখা যেতে পারে। তাতে সমস্যা নেই।
 


Disclaimer & Privacy Policy  |  About us  |  Contact us

© bdnews24.com