তোমারে দেখছিলাম আমি

শামসেত তাবরেজী | ২ মে ২০১২ ৬:৪০ অপরাহ্ন

তোমারে দেখছিলাম আমি ফতুল্লাবাজারে, জলডুমুরের দেশে, গৌড়-পূর্ণিমায়, দশবিশ ক্রোশ খালি-পায়ে সুতানলি রাস্তা হেঁটে-হেঁটে, খালিয়াজুরির মাঠে ঘাড়ত্যাড়া চাঁদের আসরে, সদ্য বণিক-বনা টেরি-কাটা বদমাইশগুলার গলা পৌঁছে নাই যেই-তক্, আরও দূরে স্বরবৃত্ত চালে ব’য়ে যাওয়া উড়াল নদীর পাড়ে
তোমারে দেখছিলাম আমি, দেখছিলাম তোমারে, রক্তবিজল-মাখা তিরের আগায় মনুষ্য নিমির্ত
স্বপ্ন নিয়ে ছুটে যাচ্ছ কাল থেকে মহাকালে মধুপুরে, অশেষ বাঙলায়!

আমি-বা ছিলাম কোথা? শঙ্খের ভিতর সমুদ্রগর্জনে নাকি আছিলাম দধিচীর হাড়ে অথবা কি দিশাহীন,
পাটি-পতাকাহীন খাটাসদের রঙ্গশালায়? কভু তারা-জ্বলা রাত্রির দাড়িম্ব-রসালঘুমে তোমার ফাতিহা আমি তুলিনি গলায়? পাখসাটে এয়ারোডাইনামিক উড্ডয়ন-প্রণয় লীলার ছন্দ বাঁধি নাই?
খালি-খালি আসঙ্গলিপ্সায় গেছি ভেসে নৌকাবিলাসে, চিটাধানগুচ্ছের শিকড় মুঠায় নিয়ে প্রতীক সম্বল!

তোমারে দেখছিলাম সেই একবার জন্মবার মোরগঝুঁটির গর্বিত ভঙ্গিতে, তুমি তোমার পুতেরে
দ্যাখো নাই ফ্যালফ্যাল দুই চক্ষু যমুনা ক’রে আর-সব দেখার গুষ্টি মেরে নিষ্পলক তোমারে দেখতেছিল?
সেইদিন যদি সম্ভাব্য স্বপ্নের চারা রু’য়ে দিতে সহজিয়া মৃত্তিকায় মিলনের তরে

দেখতাম ফকিন্নির বাচ্চারা কী প্রকারে জিভ-ঝাড়া উল্লাস করে!

free counters

সর্বাধিক পঠিত

প্রতিক্রিয়া (17) »

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ওয়াহিদ সুজন — মে ৩, ২০১২ @ ১২:৩৯ পূর্বাহ্ন

      কয়েকদিন আগে আপনার একটা দীর্ঘ কবিতা পড়েছিলাম সাহিত্য ক্যাফেতে। ভালো লেগেছিল।

      এটাও বেশ লাগল।
      শুভ কামনা।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Taposh Gayen — মে ৩, ২০১২ @ ৩:২৫ পূর্বাহ্ন

      I enjoyed this poem because of its playful journey with words, sentences, allusions, intonations, etc. I wish I could read a bunch of poems of this form at one sitting!

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন গৌতম চৌধুরী — মে ৩, ২০১২ @ ১২:৩৬ অপরাহ্ন

      ভালো লাগল।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন শিমুল সালাহ্উদ্দিন — মে ৩, ২০১২ @ ১:২২ অপরাহ্ন

      বাহ্! খুব ভালো লাগলো। অভিনন্দন শামসেত তাবরেজীকে। উনার আরো কবিতা পড়তে চাই।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন আহমাদ মাযহার — মে ৪, ২০১২ @ ৩:০৬ অপরাহ্ন

      তাবরেজী ভাই,
      ভালো লাগল আপনার কবিতাটি। শব্দের প্রচলিত অর্থকে বেঁকেচুরে দিয়েছেন। জীবনানন্দের ভাবকে বইয়ে দিয়েছেন ভিন্ন ধারায়। ফলে তা হয়ে উঠেছে নতুন ভাব। কবিতায় যদি নতুন স্বাদ না পাওয়া যায় তাহলে কবিতা পড়ে আনন্দ পাওয়া যায় না। আপনার কবিতা পড়ে আমি আনন্দ পেয়েছি। অনুভব করেছি আরও গভীরভাবে পাঠ করলে আরও আনন্দ পাব। জয়তু শামসেত তাবরেজী!
      আপনার কবিতার বই ‘ভাতের ভুগোল’ ভালো লেগেছিল।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন কুলদা রায় — মে ৪, ২০১২ @ ১১:১৬ অপরাহ্ন

      শূন্য মাধ্যমেও আলো বেঁকে যায়। এই কবিতা পড়ে আমার এ রকম বোধ হচ্ছে।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন shamset tabrejee — মে ৫, ২০১২ @ ২:৪৪ অপরাহ্ন

      আহমাদ মাযহার ভাই,
      আমার কোনো বইয়ের নাম ভাতের ভূগোল নয়, হে অনেক ভাতের হোটেল। প্রীতি জানবেন।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন কাজল শাহনেওয়াজ — মে ৫, ২০১২ @ ১০:৫৭ অপরাহ্ন

      ‘খাটাসদের রঙ্গশালায়’ তাবরেজী লাল সালাম। কতদিন ধরে বেগুনগাছে দেড়হাতি এনজিও বেগুন দেখার আশায় বসে আছি… তাবরেজীলালআগুনলাগাবে… গ্যাস বেলুনে করে যাব ফায়ার ফাইটার হয়ে… কবিতা… আমাদের পুত্রকন্যাদের বিয়ার আসরে গানের দল হবার আগেই আরেকটা বাংলা কবিতা লেখা…

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন আহমাদ মাযহার — মে ৬, ২০১২ @ ১:০৪ পূর্বাহ্ন

      তাবরেজী ভাই,
      দুঃখিত ভাই। হে অনেক ভাতের হোটেল-এর কথাই বলতে চেয়েছি। আরেকটা বইয়ের সঙ্গে কী করে যে গুলিয়ে ফেললাম! নিজেই নিজের কান মলে দিচ্ছি!

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Adonis — মে ৬, ২০১২ @ ৯:০১ পূর্বাহ্ন

      Felling a very fresh morning after reading your Poem. Thanks a lot and carry on.

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন মিঠেল রোদ — মে ৬, ২০১২ @ ১০:১৩ অপরাহ্ন

      দারুন লাগল আপনার কবিতা।পড়ার সময় কেমন যেন একটা
      শীতল জলের ধারা বয়ে গেল ভেতরে ভেতরে।
      ভাল থাকুন।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন রওশন আরা মুক্তা — মে ৬, ২০১২ @ ১০:৩৫ অপরাহ্ন

      খালি-খালি আসঙ্গলিপ্সায় গেছি ভেসে নৌকাবিলাসে, চিটাধানগুচ্ছের শিকড় মুঠায় নিয়ে প্রতীক সম্বল!

      হাতুড়ি আর দারিপাল্লার হিশাবও তো কম কষি নাই! অনেক ভাল লাগছে কবিতা!

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন জিয়া হাশান — মে ৮, ২০১২ @ ২:২৩ অপরাহ্ন

      ভালো লাগল, ধন্যবাদ তাবরেজী ভাই। খালিয়াজুরি কোথায়? আমি একটা চিনি জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায়

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Sabidin Ibrahim — মে ২০, ২০১২ @ ১২:৩৩ অপরাহ্ন

      Real flavor from Bangladesh.
      Enjoyed this poem!
      Waiting to read more from you..

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন লীনা দিলরুবা — মে ২০, ২০১২ @ ১২:৩৭ অপরাহ্ন

      বাহ! এক কথায় চমৎকার!
      কবিতার তেজ কোথায় আঘাত করিলো যেন!

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন জাহিদ মুস্তাফা — মে ২৭, ২০১২ @ ২:৫৭ অপরাহ্ন

      তাবরেজী,
      তোকে ধন্যবাদ বাঙালিকে একটা সুস্বাদু কবিতা খাওয়ানোর জন্য। ভালো লিখছিস, ভালো থাকিস।
      জাহিদ মুস্তাফা

আর এস এস

আপনার প্রতিক্রিয়া জানান

 
প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন:
১. ছদ্মনামে করা প্রতিক্রিয়া এবং ব্যক্তিগত পরিচয়ের সূত্রে করা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না। বিষয়সংশ্লিষ্ট প্রতিক্রিয়া জানান।
২. বাংলা লেখায় ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
৩. পেস্ট করা বিজয়-এ লিখিত বাংলা প্রতিক্রিয়া ব্রাউজারের কারণে রোমান হরফে দেখা যেতে পারে। তাতে সমস্যা নেই।
 


Disclaimer & Privacy Policy  |  About us  |  Contact us

© bdnews24.com