ই-লাইব্রেরি

মিসেস্ আর, এস্, হোসেন প্রণীতমতিচূর (প্রথম খণ্ড)

admin | 20 Oct , 2010  

মিসিস্ আর, এস্, হোসেন বা মিসেস্ আর, এস্, হোসেন প্রণীত বইগুলো বাংলা একাডেমী ‘রোকেয়া রচনাবলী’ নামের সংকলনে বেগম রোকেয়া’র রচনা বলে প্রকাশিত হয়। ২০০৬ সালে বাংলা একাডেমী প্রকাশিত নতুন সংস্করণের ভূমিকা’য় (ভূমিকার রচয়িতা ও তারিখ অনুল্লেখিত) বলা আছে, “বেগম রোকেয়া বা রোকেয়া সাখাওয়াৎ হোসেন নামে যিনি বহুলপরিচিত, তিনি লিখতেন ‘মিসেস আর. এস. হোসেন’ নামে, এই নামে তাঁর বইগুলিও বেরিয়েছিল।”

motichur-cover-3.jpg………
মতিচূর প্রথম খণ্ড, দ্বিতীয় সংস্করণ (১৩১৪ বঙ্গাব্দ)-এর কভার ও মিসেস আর. এস. হোসেন-এর ছবি আর্টস সংস্করণের প্রচ্ছদ হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে।
………

মিসেস্ আর, এস্, হোসেন বিরচিত বই মতিচূর প্রথম খণ্ড-এর আর্টস সংস্করণ প্রকাশের ক্ষেত্রে বহুল পরিচিতির চাইতে তৎকালে প্রকাশিত বই-এ রচয়িতার যে নাম ব্যবহার করা হয়েছিলো তাকে অধিকতর প্রামাণ্য বলে স্বীকার করা হয়েছে। মতিচূর প্রথম খণ্ড, দ্বিতীয় সংস্করণ-এর কভার-এ মিসেস আর, এস্, হোসেন নাম স্বাক্ষরিত পাওয়া যায়। মতিচূর দ্বিতীয় খণ্ড বাংলা ১৩২৮ সালে কলকাতা থেকে প্রকাশিত হয় মিসিস্ আর, এস্, হোসেন নাম স্বাক্ষর নিয়ে। পদ্মরাগও একই নাম স্বাক্ষরে। আবার ইংরেজি গ্রণ্থ ‘Sultana’s Dream’-এর প্রণেতার নাম পাওয়া যায় Mrs. R. S. Hossain; পরবর্তিতে পাকিস্তান গঠিত হবার পরে (গ্রন্থ প্রণেতার মৃত্যুপরবর্তি কালে) ঢাকার মোহাম্মদী বুক হাউস থেকে অবরোধ-বাসিনী বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন নাম স্বাক্ষরে প্রকাশিত হয়। ১৯৩১ সালে অবরোধ-বাসিনী প্রথম প্রকাশের কভারের হদিস করা যায়নি। লেখিকার জীবদ্দশায়, মতিচূর প্রথম খণ্ড-এর পরে থেকে মৃত্যু অবধি যেই নাম (মিসিস্ আর, এস্, হোসেন) তিনি ব্যবহার করেছিলেন , আর্টস তাকেই লেখিকার নাম হিসেবে গ্রহণ করেছে।

তৎকালীন ভারতবর্ষের মুসলিম ও হিন্দু সমাজ, পারিবারিক জীবনে নারী-পুরুষ সম্পর্ক, সমাজজীবনে নারী ও পুরুষের পরস্পরের সাপেক্ষে অবস্থান ইত্যাদি বিষয়ে রোকেয়ার দৃষ্টিভঙ্গি ও বিশ্লেষণ সম্মৃদ্ধ প্রবন্ধ সংকলন মতিচূর। মতিচূর দুই খণ্ডে প্রকাশিত হয়।

আর্টস ইবুক (ebook) সিরিজে এবার প্রকাশিত হলো মিসিস্ আর, এস্, হোসেন প্রণীত মতিচূর প্রথম খণ্ড।

ডাউনলোড ( Download ) করুন মিসিস্ আর, এস্, হোসেন প্রণীত মতিচূর প্রথম খণ্ড
পিডিএফ ফাইল, সাইজ: ৮২৮কেবি

free counters


8 Responses

  1. Bani Amin says:

    স্ত্রী জাতির অবনতি , অর্ধাঙ্গী শ্রেণীকক্ষে পাঠদান করতে হয় – কিন্তু মুদ্রণ ত্রুটিতে তার যে অবস্থা! আমি খুশি–ভীষণ খুশি যে শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরো মতিচুর উপস্থাপন করতে পারবো।

  2. Swad says:

    দ্বিতীয় খণ্ড কবে পাব?

  3. বইটি আমি ডাউনলোড করেছি। এখন পড়বো। এবং পড়ার পরে মন্তব্য করবো।
    বিডিনিউজ২৪.কম-কে এ উদ্যোগ নেওয়ার জন্য অশেষ ধন্যবাদ।

  4. mostaq says:

    আমি বইটি ডাউনলোড করলাম। আর এস রহমান এর কোন বই পড়িনি, পড়ার পর মন্তব্য করবো ।

  5. ইমতিয়াজ says:

    ধন্যবাদ

  6. আকরাম হোছাইন চৌধুরী says:

    আমি এখন ডাউনলোড করছি।
    আমার খুব ভালো লাগছে।
    bdnews24 অনেক ধন্যবাদ।

  7. md.zakir hossen says:

    আমি বইটি ডাউনলোড করলাম।পড়ার পর মন্তব্য করবোবিডিনিউজ২৪.কম-কে এ উদ্যোগ নেওয়ার জন্য অশেষ ধন্যবাদ।
    Md.Zakir hossen.

  8. Bintu says:

    porer khondogulo ki ashbe???
    asle valo hoto khubiiii……

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.