আর্টস

জুননু রাইন-এর এয়া

জুননু রাইন | 7 Aug , 2019  


একটা সুবহে সাদিকে সেজদারত পৃথিবীর মুখ ভেসে উঠছে-
ধূপের আলোয়, মন্দিরের ঘণ্টায়, পাহাড়ের শব্দে।
শহুরে কুকুরের ডাকে কয়েক ফোঁটা ক্লান্ত ঘুম ঝরছিল-
বট ফলের লাল-নীল গন্ধে- ঝরছিল।

এমন একটি ভোর আমাকে তোমার দিকে নিয়ে যাবে?

প্লাটফর্মে ছিনতাইয়ে সর্বস্ব হারানো যুবকের কান্না-
উৎসুক জনতার ভিড়ের দিকে তাকানো দু’পাহীন অতিউৎসাহী
জ্বলজ্বলে চোখে যে গল্পটি হাসছে- আমি তাকে চিনি না।

ট্রেন তখনও আসেনি, মানুষের যাওয়া আর যাওয়া…
ঠিকানাহীন এই যাওয়ার ভিড়ে কোনো মানুষ ছিল না
ছিল না খালি জায়গা- হাটবার, দাড়াবার, বসবার।

সূর্য উঁকি দিচ্ছে! সেও কী দেখবে?
নাকি তার চোখে আমাকে আবার মানুষের পৃথিবী দেখতে হবে!
ভয়ে আমি বৃক্ষের মতো হাঁটতে থাকি, মাটির মতো দৌড়াতে থাকি
মাটি তোমার পায়ের নিচে, বৃক্ষ তোমারই বাগান
বল, তোমার নাম বিছিয়ে বসে থাকা এই পৃথিবীর কোথায় পালাব!


2 Responses

  1. আহমেদ বাসার says:

    চেতনায় অনুরণন জাগানো পংক্তিমালা। ভালো লাগলো।

  2. অজিতকুমার রায় says:

    চমৎকার লাগলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.