আর্টস

তিনশত দশ ঈশ্বর কতল

মুজতবা আহমেদ মুরশেদ | 23 Apr , 2019  


কতল করে দিলে তিনশত দশ ঈশ্বর বোমায়, বারুদে এক নিমিষেই !
এক লহমায় ছিন্নভিন্ন করে দিলে তিনশত দশ অপরূপ সিংহলি প্রভাত !
ঘৃণিত ক্ষিপ্রতায় টুকরো টুকরো করে দিলে তিনশত দশ সবুজ বিকেল !
তিনশত দশ গান গাওয়া নদীর গহীন জীবন খুন করলে একেবারেই !

খুন করলে সকালের সোনালী রোদে হাসতে থাকা যিশুকে আবার।
তিনশত দশ কোমল নবীন বিকেল হত্যায় মত্ত হলে বর্বর !
তবুও দাবি করো তুমিও মানুষ ! মানুষেরে হত্যা করে, করো সাবার !

তবুও দানবের নোখের খোপে সুখ বিকৃতি নিয়ে হাসো !
তোমাদের ঈশ্বরের কাছে নগ্ন প্রকাশ হয়ে উল্লাসে নাচো !

ভুলে গেলে মানবের ভেতরেই জনম জনম ঈশ্বর যাঁচে!
ভুলে গেলে ঈশ্বরের নূরেই মানব জনম পেয়ে ঈশ্বর বাঁচে !

ঈশ্বর খুন করে তো মেলেনা ঈশ্বর!
ঈশ্বর কতল করে তো মেলেনা জীবন!
ঈশ্বর ছিন্নভিন্ন করে তো মেলেনা প্রদীপ!

তবুও সোনালি সকালে কতল করে দিলে তিনশত দশ ঈশ্বর একেবারে!

তোমার ঈশ্বরের কাছে ঈশ্বর খুনের প্রতিদান তুমি পাবেনা কখনো। পাবেনা।
তিনশত দশ নিরীহ ঈশ্বর কতলের রক্ত হাতে দানব যাবেনা বেহেশতে। যাবেনা। ।
তিনশত দশ প্রার্থনারত ঈশ্বর খুনের রক্ত মুকুট, তোমাকে দেবেনা শান্তি। দেবেনা।

ঈশ্বর হত্যাকারী দানব তোমরা সকল, তোমাদের পুণর্জন্ম কখনো কোথাও হবেনা।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.