বইয়ের আলোচনা

কথায়-আড্ডায় মাশরাফি ও সেরাদের সংলাপ

মারুফ বিল্লাহ তন্ময় | 26 Feb , 2019  

কথায়-আড্ডায় মাশরাফি
আরিফুল ইসলাম রনি


ক্রিকেট মাঠের নৈপুণ্যে বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষকে বহুবার আনন্দে ভাসানো, রোমাঞ্চে জাগানো মাশরাফি এখন একজন আইনপ্রণেতাও। সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নড়াইল-২ আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চেয়ে ৩৪ গুণ বেশি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়টাতেই প্রমাণ হয়ে যায় ঠিক কি পরিমান জনপ্রিয় তিনি এই ভূখণ্ডের মানুষের কাছে!
‘কথায়-আড্ডায় মাশরাফি’ বইটি মূলত ১৮ টি সাক্ষাৎকার এবং ৫টি আর্টিকেলের সংকলন। মাশরাফির সাক্ষাৎকারগুলোর বেশির ভাগই ‘সিচুয়েশনাল’, কোনো সিরিজ বা টুর্নামেন্ট, কিংবা ঘটনার প্রেক্ষিতে নেওয়া। কখনও সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়েছে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের জিমে, কখনও ড্রেসিং রুমে। কোনোটি নেওয়া হয়েছে তার বাসায়, কোনোটি মিরপুর ১২ নম্বরে তার আড্ডাখানায়।
শুধু সাক্ষাৎকারগুলোর কথাও বললে, প্রতিটি সাক্ষাৎকারের পেছনে গল্প আছে। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরে প্রকাশিত সাক্ষাৎকারগুলো হুবহু রেখে বইয়ের প্রয়োজনে প্রতিটির পেছনের গল্প জুড়ে দিয়েছেন লেখক আরিফুল ইসলাম রনি। এই সাক্ষাৎকারগুলোতে মাশরাফির কণ্ঠেই ফুটে উঠেছে নানা রূপের মাশরাফি। চার বছরের সাক্ষাৎকারের সংকলন এই বই আসলে মাশরাফির সঙ্গে পথচলা তার কথায় মগ্ন হয়ে।
লেখক পরিচিতি: লেখক আরিফুল ইসলাম রনির জন্ম টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে। পড়াশোনা ধনবাড়ী কলেজিয়েট স্কুল হয়ে রংপুর ক্যাডেট কলেজ, অর্নাস-মাস্টার্স ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়নে। ছেলেবেলা থেকেই ক্রিকেট প্রেমের শুরু। ঢাউস সব খাতায় টুকে রাখতেন ক্রিকেটের সব স্কোর, রেকর্ড, পরিসংখ্যান। ইচ্ছে ছিল বিকেএসপিতে যাওয়ার, বাবার চাওয়ায় ভর্তি হতে হয়েছিল ক্যাডেট কলেজে। তবে ক্রিকেটের প্রতি অনুরাগ বয়সের সঙ্গে কেবল বেড়েছেই। ক্যাডেট কলেজে ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রিকেট খেলেছেন। ঢাকা প্রথম বিভাগের একটি ক্লাবে এক মৌসুম ছিলেন। খেলার সুযোগ না পেলেও পানি-তোয়ালে টানার সৌভাগ্য হয়েছে।
ক্রিকেটার হতে না পারার আক্ষেপ পরে রূপ নিয়েছে ক্রিকেট লিখিয়ে হওয়ার আনন্দে। বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার দা সূর্যসেন হলের দিনগুলি থেকে দেশের শীর্ষ একটি দৈনিকে লেখালেখির শুরু। ২০০৯ সালে সেই পত্রিকার হয়েই শুরু ক্রীড়া সাংবাদিকতা জীবনের। ৬ বছর সেখানে কাটিয়ে ২০১৫ সাল থেকে কাজ করছেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান ক্রিকেট প্রতিবেদক হিসেবে। স্ত্রী স্বর্ণা, ছেলে রাজপুত্তুর ও ক্রিকেট নিয়ে আনন্দময় এক ভুবনে তার বসবাস।

প্রচ্ছদ: মোতাসিম বিল্লাহ পিন্টু
প্রচ্ছদের চিত্রকর্ম: শামিউর রহমান নয়ন
আইএসবিএন: 978-984-93089-8-0
পৃষ্ঠা সংখ্যা: ১৮৪
প্রকাশকাল: ফেব্রুয়ারি ২০১৯
মূল্য: ৮০০ টাকা

সেরাদের সংলাপ
শুভরঞ্জন দাশগুপ্ত


অমর্ত্য সেন, অমিয় কুমার বাগচী, বিমলকৃষ্ণ মতিলাল, অমলেশ ত্রিপাঠী, ভিলি ব্রান্ড, গুন্টার গ্রাস, উইলিয়াম গোল্ডিং, শঙ্খ ঘোষের মতো বিশ্ববরেণ্যদের সাক্ষাৎকারের সংকলন এই গ্রন্থটি। প্রতিটি সাক্ষাৎকার দৈর্ঘ্যে, গভীরতায়, পাণ্ডিত্যে ও সুতীক্ষ্ণ পর্যবেক্ষণে অসামান্য। সাক্ষাৎকারগুলো পত্রিকায় প্রকাশের পরপরই তুমুল আলোড়ন তুলেছিল পাঠকমহলে। প্রাবন্ধিক ও সাংবাদিক শুভরঞ্জন দাশগুপ্তের গৃহীত এই সাক্ষাৎকারগুলোয় প্রাচ্য ও প্রতীচ্যের সেরা ভাবুকদের আভায় ও বিশ্ববোধের আলিঙ্গনে নিজেকে আবিস্কার করে যে তৃপ্ত বোধ করবেন তাতে কোনো সন্দেহ নেই।
লেখক পরিচিতি: ১৯৪৯ সালের ১৯ এপ্রিল কোলকাতায় জন্ম নেয়া শুভরঞ্জন দাশগুপ্ত প্রেসিডেন্সি কলেজ ও কোলকাতা ব্শ্বিবিদ্যালয়ে ইংরেজি সাহিত্যে পড়াশোনার পর সাংবাদিক হিসেবে ‘আনন্দবাজার’পত্রিকায় কাজ শুরু করেন। পরবর্তীতে তিনি জার্মানির কোলন শহরে গিয়ে ‘ভয়েস অব জার্মানি’তে এডিটর হিসেবে যোগ দেন এবং হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি সম্পন্ন করেন। তার প্রধানতম আগ্রহ এবং গবেষণার বিষয়গুলো হল- মার্কসীয় ও নব্য মার্কসীয় নন্দনতত্ত্ব, সাহিত্যের সামজতত্ত্ব এবং দেশভাগ।তার লিখিত ও সম্পাদিত উল্লেখযোগ্য গ্রন্থগুলো হচ্ছে The Trauma and the Triumph: Gender and Partition in Eastern India (যশোধরা বাগচির সাথে) এবং Dialogues with Four Nobel Laureates. সংস্কৃতি ও রাজনীতি বিষয়ক লেখার সমালোচক এবং গবেষক হিসেবে তিনি বিষ্ণু দে, জীবনানন্দ দাশ, মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়, বেটোল্ড ব্রেখ্ট, গুন্টার গ্রাস, সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ এবং অতি অবশ্যই আখতারুজ্জামান ইলিয়াসকে নিয়ে বিস্তর লেখালেখি করেছেন।
প্রচ্ছদ: সব্যসাচী হাজরা
আইএসবিএন: 978-984-93089-7-3
পৃষ্ঠা সংখ্যা: ১৭৬
মূল্য: ৩৯০ টাকা
প্রকাশকাল: ফেব্রুয়ারি ২০১৯
Flag Counter


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.