কবিতা

কুমার চক্রবর্তীর সিজ্জিন-ইল্লিইন

কুমার চক্রবর্তী | 6 Jan , 2019  


আমার এ সিজ্জিন, দুষ্কৃত বিবরণী,
ওই যে ওঠে ভেসে, পাপের গোলাঘর
আমি যে মহাপাপী, বরাতে তাই বলে
আমার নিয়তিতে, দুঃখ নিরন্তর!

জন্মেছি পাপ মেখে, কেটেছে দুঃসময়
আমার এ অন্তর, হারামি বীজতলা
বপন হয় বীজ, ধীরে ও অগ্নিসম
আমি যে ক্ষমাহীন, বিবেকে হলো সারা!

ভয়দ কাঁপি আমি, উপায় দূরগামী
ফলত তাই আমি, হই যে দিশাহারা
মানুষ মরে গেলে, ফেরার পথ নাই
মনুষ্য জীব তাই, রক্তাক্ত কারবালা!

আবার ভাবি আমি, হঠাৎ চমকিত
এতটা কষ্ট কী, আমার দায়সারা!
উপায় খুঁজে ফিরি, হঠাৎ পেয়ে যাই
আছে তো ইল্লিইন, এই যে পথখোলা!

সিজ্জিন-ইল্লিইন, দু-ভাগ আমলেতে
”কিত হই আমি, খুশিতে দিলখোলা
এ দুটো সম সম, ওজনেও পাল্লায়
এখন কী যে হবে, স্রষ্টার ফয়সালা!

বাতিলে আছি আমি! তাতেই সুখকর
সঞ্চয়ে সমান যে, সুকৃতি ও দুষ্কৃতি
ভাবি যে নিরজনে, একাই আনমনে
কীভাবে হই আমি, বিচারে মুখোমুখি!
Flag Counter


1 Response

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.