সঙ্গীত

আইয়ুব বাচ্চুর কষ্ট রেভ্যুলিউসন

লতিফুল ইসলাম শিবলী | 25 Oct , 2018  


আইয়ুব বাচ্চুর কফিনের শোক যাত্রায় এক তরুণ তার ঊচানো হাতের প্লাকার্ডে লিখে এনেছে- ‘আমি কষ্ট পেতে ভালবাসি’। তার প্রিয় গায়কের কফিনের সাথে সাথে হাটা সেই গম্ভীর তরুণ প্লাকার্ডে বাকি অংশটা না লিখলেও আজ সত্যি সত্যি বিচ্ছেদ যাতনা ভরা তার অভিব্যক্তি বলে দিচ্ছে – কষ্ট পেতেই সে আজ ছুটে এসেছে।
‘আমি কষ্ট পেতে ভালবাসি’ এটা যে কতটা শক্তিশালী আর বৈপ্লবিক স্লোগান ছিল সেটা নব্বই দশকে এই গান লেখার সময় আমি টের পাইনি। সদ্য স্বৈরাচার-মুক্ত বাংলাদেশের তারুণ্য তখন গভীর পরিবর্তনের উন্মাদনায় অস্থির। চলছে সবকিছু ভেঙ্গেচুড়ে নতুন নির্মাণের যাত্রা। সেটা কোন ‘মহান’ নেতার ডাকে অথবা কোন আনুষ্ঠানিক নব যাত্রা ছিল না। সেটা তৈরি হয়েছিলো স্বতঃস্ফূর্তভাবে। আরবান তারুণ্যের ইংরেজি গান শোনার অভ্যাস আর দেশব্যপি হিন্দি সিনেমার গানের আগ্রাসন ভেঙে দিয়ে ব্যান্ডের গীটারের ইলেকট্রিক ডিসটসন সাউন্ডের সঙ্গে নতুন দ্রোহের ভাষার গান হয়ে উঠেছিলো- আমি কষ্ট পেতে ভালবাসি /তাই তোমার কাছে ছুটে আসি।


স্বাধীনতা-পরবর্তী তারুণ্যের রোমান্টিসিজম ছিল কষ্ট ফেরি করে বেড়ানো, হেলাল হাফিজের ভাষায় ‘কষ্ট নেবে কষ্ট’ বলে যে আকুতি প্রকাশ করেছে, নব্বইতে এসে সেটাই হয়েছে দ্রোহের ভাষা -আমি কষ্ট পেতে ভালবাসি তাই তোমার কাছে ছুটে আসি। আমি যদি কবিতার কবি হয়ে থাকি তবে নিশ্চিত আইয়ুব বাচ্চু ছিলেন গীটারের কবি। আর সেই গীটারের সুরের ভিতর দিয়ে যে অবিনাশী দ্রোহের সুর বের হয়েছে সেটা দখল করে নিয়েছে লক্ষ লক্ষ তরুণ তরুণীর হৃদয়। ঘটিয়েছে এক সরব কালচারাল রেভ্যুলিউসন। সেই বিপ্লবে তিন দশকের তিনটা জেনারেশন বেড়ে উঠেছে, সেই বিপ্লব ধারন করেছে আর লালন করেছে। আইয়ুব বাচ্চুর এত কাছাকাছি থেকেও আমরা টের পাইনি আমাদের এই গীটারের কবি নিজেকে কতটা বিস্তৃত করেছেন, কতটা গভীরে নিজেকে প্রোথিত করেছেন।
আমাদের বেঁচে থাকা জীবনের এক বড় ট্রাজেডি এটাই যে ‘কতটা জুড়ে আছে’ সেটা বোঝার জন্য ‘তার না থাকাটা’ দেখার জন্য অপেক্ষা করতে হয়।

Flag Counter


3 Responses

  1. প্রিসিলা রাজ says:

    আইয়ুব বাচ্চুর সঙ্গে আপনার গানের মেলবন্ধনের এসব গল্প বাংলাদেশের সমসাময়িক সঙ্গীতের ইতিহাসে এক একটি টুকরো গল্প। সেদিন প্রথম আলোতে একটি অডিও ভিজুয়াল বৈঠক দেখলাম আইয়ুব বাচ্চু স্মরণে। সেখানে খুব চিত্তাকর্ষক আলোচনা উঠে এল এই ‘কষ্ট’ শব্দটা নিয়ে। আপনি বলেছিলেন, হেলাল হাফিজের কবিতায় শব্দটির ব্যবহার আপনাকে সঙ্গীতেও শব্দটি ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করে। আপনি গান লিখে ফেলেন। আইয়ুব বাচ্চু সুর করেন। অন্যদিকে তপন চৌধুরী মনের বেদনা অর্থে ‘কষ্ট’ শব্দটা সাহিত্য বা সঙ্গীতে কতটা প্রযোজ্য হতে পারে বা হওয়া উচিত কিনা তা নিয়ে দ্বিধায় পড়ার কথা বললেন। সমসাময়িক সঙ্গীতে কথা ও সুর নিয়ে এত ঋদ্ধ আলোচনা কমই দেখা যায়। আরো লিখুন, কথা বলুন। প্রতিটি গানের হয়ে ওঠার গল্প বলুন। তবেই লেখা হবে টাকা ও অন্ধ বিশ্বাসের মোহে ক্রমশ অন্ধ হতে বসা এই দেশের সমসাময়িক সঙ্গীতের ইতিহাস।

  2. Md Zafar Alam Bhuiyan says:

    He is the only talent of Music from Bangladesh. RIP Ayub Bachhu.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.