মাহমুদ দারবিশের তিনটি কবিতা

‘পরিচয়পত্র’, ‘ও আমার পিতা, ইউসুফ আমি’ এবং ‘আমার মা’

জুয়েল মাজহার | ১৫ আগস্ট ২০০৮ ৩:৪২ অপরাহ্ন

palestine-1.jpg
বিলাপরত প্যালেস্টাইনি ও ইজরাইলের নিরাপত্তারক্ষী

পরিচয়পত্র

লিখে রাখো!
আমি একজন আরব
এবং আমার পরিচয়পত্রের নম্বর ৫০ হাজার
আমার ৮ টি সন্তান
আর নবমটি পৃথিবীতে আসবে গ্রীষ্মকালের পর
তোমরা কি ক্ষুব্ধ হবে তাতে?

লিখে রাখো!
আমি একজন আরব
কোয়ারিতে সহ-শ্রমিকদের সঙ্গে কাজ করছি আমি
আট সন্তানের বাবা আমি
আমি ওদের এনে দিই রুটি
পোশাক আর বই
এনে দিই পাথর থেকে..

মাগি না ভিক্ষা আমি তোমার দুয়ারে
তোমার কক্ষের দোরগোড়ায় নিজেরে করি না আমি ছোটো
তুমি কি করবে রাগ আমার ওপর?

লিখে রাখো
আমি একজন আরব
আমার একটি নাম আছে পদবিবিহীন
যেদেশে লোকেরা ক্ষুব্ধ
সেই দেশে আমি এক সহিষ্ণু মানুষ
আমার শেকড়গুলি
হয়েছে প্রোথিত সময়েরও জন্মের আগে, আর
যখন হয়নি কোনো যুগের সূচনা
পাইন আর জলপাই তরুদের আগে আর
ঘাসের জন্মেরও ঢের আগে

আমার পিতা.. লাঙ্গলের উত্তরাধিকার বইছেন তিনি
সুবিধাভোগীদের প্রতিভূ নন তিনি
এবং পিতামহ আমার.. ছিলেন কৃষক এক
ছিলেন না ধনবান অথবা কুলীন
পড়তে শেখানোর আগে তিনি
সূর্যের গৌরব দীক্ষা আমায় দিলেন
আর, ডালপালা বেতে গড়া আমার বাড়িটি যেন পর্নকুটির
কোনো এক পাহারাদারের
এ-আমার পরিচয়ে তোমরা কি তৃপ্ত?
আমার রয়েছে একটি নাম পদবিহীন!

লিখে রাখো
আমি একজন আরব
তোমরা চুরি করেছো আমার পূর্বপুরুষের ফলকুঞ্জ
আর সেই ভূমিকে যা আমি কর্ষণ করেছি
আমার সন্তানদের সঙ্গে নিয়ে
আর তোমরা আমাদের জন্য কিছুই অবশিষ্ট রাখোনি
শুধু এই পাথরগুলো ছাড়া..
তাহলে কি, যেমনটি বলা হচ্ছে,
সবকিছু রাষ্ট্র এসে কেড়ে নিয়ে যাবে?!

অতএব !
প্রথম পাতার শীর্ষে লিখে রাখো:
আমি ঘৃণা করি না মানুষকে
অথবা দখল করি না অন্যের জমি
কিন্তু যখন আমি ক্ষুধার্ত তখন
জবরদখলকারীর মাংস হয় আমার খাবার
সাবধান…
সাবধান…
আমার ক্ষুধার ব্যাপারে
আর আমার ক্রোধের ব্যাপারে!

Identity Card (১৯৬৪)থেকে অনূদিত

ও আমার পিতা, ইউসুফ আমি

পিতা, আমি ইউসুফ
ও পিতা আমার!
আমার ভায়েরা আমায় ভালোবাসে না
ওরা আমার সান্নিধ্য চায় না।
পিতা আমার! ওরা আমায় প্রহার করে
ওরা আমার দিকে পাথর ছুঁড়ে মারে
আর অপমানে জর্জরিত করে আমায় ।
আমার ভায়েরা আমার মৃত্যু চায়
ওরা তাই মিছেমিছি প্রশংসা বিলায়।
ওরা আমার মুখের সামনে তোমার দরজা বন্ধ করে দিয়েছে,
এবং আমি আজ বহিষ্কৃত
তোমার জমিজিরেত থেকে।
ওরা বিষ ছড়িয়ে দিয়েছে আমার দ্রাক্ষাকুঞ্জে,
আহ্ পিতা আমার!
বহমান মৃদু হাওয়া যখন
চুলে আমার কৌতুক বুলিয়ে গেল
ওরা সবে কাতর হলো ঈর্ষায়,
ওরা অপমানে বিদ্ধ করলো তোমাকে আর আমাকে ।
কী এমন ক্ষতি আমি করেছি ওদের, পিতা,
ওদের করেছি আমি কোন্ অপকার?
প্রজাপতিরা এসে আমার কাঁধে বিশ্রাম নেয়,
আমাকে কুর্নিশ করে গমের গুচ্ছ
আর আমার হাতের ’পরে উড়ে বেড়ায় পাখি
তাহলে কী ভুল করেছি আমি, পিতা
কেন তবে এহেন লাঞ্ছনা?
তুমিই তো আমার নাম রেখেছিলে ইউসুফ!
ওরা আমায় ঠেলে দিয়েছে কুয়ার অতলে
আর দোষ চাপিয়েছে নেকড়ের ঘাড়ে
ও, আমার পিতা! ওই যে নেকড়ে সে-ও
আমার ভাইদের চেয়ে অনেক দয়ালু
যখন আমি আমার স্বপ্নের কথা বলেছি
তখন কার কোন্ ক্ষতি করেছি আমি?
একাদশ গ্রহ নিয়ে স্বপ্ন দেখেছি, আর
স্বপ্ন দেখেছি ওই চাঁদ-সূর্য নিয়ে
আমার সামনে ওরা হাঁটু গেড়ে রয়েছে সকলে ।

Oh my Father, I am Yusif কবিতা থেকে অনূদিত

আমার মা

আমার মায়ের হাতে বানানো রুটির জন্য মন কাঁদে আমার
মায়ের হাতে বানানো কফির জন্য
তার স্পর্শের জন্য
মনে আমার জেগে ওঠে ছেলেবেলার স্মৃতি
দিনের পর দিন
যখন আমার মৃত্যু হবে সে মুহূর্তে
নিজের জীবনের যোগ্য হয়ে উঠতে হবে আমাকে
আমার মায়ের চোখের জলের যোগ্য

***

আর যদি আমি ফিরে আসি একদিন
আমাকে গ্রহণ কোরো তোমার চোখের পাতার আচ্ছাদন হিসেবে
ঘাসে ঘাসে ঢেকে দিও হাড় আমার
তুমি আমাদের গেঁথে দাও একটি সুতায়
তোমার পদক্ষেপের আশিসে
তোমার চুলের একটি গোছায়
চুলের যে গোছাটি নেমে এসেছে তোমার পোশাকের পিঠ বেয়ে
আমি তো অমর হবো
হয়ে উঠবো দেবতা
যদি আমি স্পর্শ করি এ-তোমার হৃদয়ের তল

***

যদি আমি ফিরে আসি
তোমার আগুনে চেলাকাঠ হিসেবে ব্যবহার করো আমাকে
তোমার ঘরের ছাদে কাপড় টানা দড়ির মতো
তোমার আশিস বিনা
আমি হীনবল দাঁড়াতে অক্ষম।

***

বুড়ো হ‘য়ে গেছি আমি
ছেলেবেলার তারার মানচিত্রখানি আমাকে ফিরিয়ে দাও তুমি
যেন আমি
আবাবিল পাখিদের সঙ্গে
আবারও রওয়ানা দিতে পারি
তোমার অপেক্ষমান নীড়ের পথে

My Mother কবিতা থেকে অনূদিত

অনুবাদ: জুয়েল মাজহার

আর্টস-এ প্রকাশিত লেখা

চাঁদে পাওয়া গাধা ও উজবুক (কবিতা)
টম গান্-এর কবিতা : ‌’যিশু ও তার মা’ (অনুবাদ কবিতা)
ফেদেরিকো গার্থিয়া লোরকার কবিতা: ইগনাসিও সানচেস মেহিয়াসের জন্য বিলাপ (অনুবাদ কবিতা)
মাহমুদ দারবিশের তিনটি কবিতা: ‘পরিচয়পত্র’, ‘ও আমার পিতা, ইউসুফ আমি’ এবং ‘আমার মা’ (অনুবাদ কবিতা)

লেখকের আর্টস প্রোফাইল: জুয়েল মাজহার
ইমেইল: jewel_mazhar@yahoo.com

ফেসবুক লিংক । আর্টস :: Arts

সর্বাধিক পঠিত

প্রতিক্রিয়া (4) »

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন মারুফ রায়হান — আগস্ট ১৫, ২০০৮ @ ১১:৪২ অপরাহ্ন

      জুয়েল মাজহার, অনেকদিন পর আপনার অনুবাদ পড়লাম। খেয়াল করেছেন যে দারবিশ প্রয়াণের পর আমরা কমপক্ষে ৭জন তার কবিতা পুনরায় পড়লাম, অনুবাদ করলাম। বাঙালিরা সত্যিই কবিতা-পাগল। আর ফিলিস্তিনিদের জন্য আমাদের ভালবাসা অকৃত্রিম। শুভেচ্ছা।

      – মারুফ রায়হান
      marufraihan71@gmail.com

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন আলফ্রেড খোকন — আগস্ট ১৬, ২০০৮ @ ৯:০২ অপরাহ্ন

      অনেকদিন পর আর্টসের পাতা আজ উল্টাতে আপনার অনুবাদ পেলাম। বাংলার মত লাগল। শুভেচ্ছা।

      – আলফ্রেড খোকন

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Zobair — আগস্ট ১৮, ২০০৮ @ ৩:২৪ পূর্বাহ্ন

      চমৎকার ব্যাপার। খুব-ই সুন্দর।

      -Zobair

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন হোসেন মোফাজ্জল — আগস্ট ১৯, ২০০৮ @ ৪:৩৭ পূর্বাহ্ন

      জুয়েল এর অনুবাদ ভাল লাগছে। চমৎকার কিছু জুৎসই বাংলা শব্দের ব্যবহার করেছেন যেমন — wood to feed your fire — চেলাকাঠ বা swallows হয়েছে আবাবিল। ছোট ছোট কিছু ত্রুটি থাকলেও পড়তে অসুবিধা হয় নাই। কিছু জায়গায় বাড়তি শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে। আমার মনে হয় বাড়তি শব্দ ব্যবহারে অনুবাদের তুলনায় ইন্টারপ্রিটেশেনর ঝুঁকি বাড়ে। আইডেন্টিটি কার্ড-এর বাংলা না করলেও চলতো। কোয়ারির ডিকশেনারি মিনিং দেয়া যেত।

      – হোসেন মোফাজ্জল

আর এস এস

আপনার প্রতিক্রিয়া জানান

 
প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন:
১. ছদ্মনামে করা প্রতিক্রিয়া এবং ব্যক্তিগত পরিচয়ের সূত্রে করা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না। বিষয়সংশ্লিষ্ট প্রতিক্রিয়া জানান।
২. বাংলা লেখায় ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
৩. পেস্ট করা বিজয়-এ লিখিত বাংলা প্রতিক্রিয়া ব্রাউজারের কারণে রোমান হরফে দেখা যেতে পারে। তাতে সমস্যা নেই।
 


Disclaimer & Privacy Policy  |  About us  |  Contact us

© bdnews24.com