আর্টস, কবিতা

লতিফুল ইসলাম শিবলীর কবিতা ‘ফাদি আবু সালাহ্’

লতিফুল ইসলাম শিবলী | 16 May , 2018  


তোমাকে দেখার আগে
জানা ছিল না-
মানুষের পা কেড়ে নিলে
তার পিঠে গজায় ডানা,
আর হাঁটতে বাধা দিলে
মানুষ শিখে যায় উড়তে।

ওরা শুরু করেছিল তোমার পায়ের নিচের মাটি থেকে,
তাই প্রথমে ওরা কেড়ে নিয়েছে তোমার জমিন।

দেশ নামের যে এক চিলতে জেলখানায় তুমি থাকতে
সে জমিন শত শত শহীদের ভিড়ে কবেই হয়ে গেছে মর্ত্যের জান্নাত।

এরপর ওরা কেড়ে নিয়েছে তোমার শৈশব,
অথচ তুমি কখনোই শিশু ছিলে না,
তুমি ছিলে সেই জান্নাতের সবুজ আবাবিল।

আব্রাহার হস্তি বাহিনীর উপর কঙ্কর ছুড়ে যেভাবে তছনছ করে দিয়েছিল,
আজ তাবৎ পৃথিবী জানে তুমিই সেই আবাবিল,
একই কায়দায় ছুড়ে মারো কঙ্কর আব্রাহাম ব্যাটেল ট্যাঙ্কের দিকে।

তোমাকে তো ছেড়ে দেয়া যায় না-
এরপর ওরা কেড়ে নিলো তোমার তারুণ্য,
তোমাকে জেলে পুরে ওরা ভেবেছিলো
শুকনা পাতার নিচে ওরা লুকিয়ে রাখবে আগুন।

আটলান্টিকের এপার ওপার হয়ে সে আগুন ছড়িয়ে পরেছে
সাতটি সাগর মহাসাগরের কুলে উপকুলে…

আর তোমার দৃপ্ত পদভারে যখন কেঁপে কেঁপে উঠতে শুরু করেছে
জেরুজালেমের প্রাচীন দেয়াল
ঠিক তখনি ওরা কেড়ে নিয়েছে তোমার অনিন্দ্য সুন্দর পা জোড়া।

সাধ্য আছে কার
কি ভাবে থামাবে ওরা তোমার চার চাকার হুইল চেয়ার,
ওরা জানত হুইল চেয়ারে বসেও বৃদ্ধ ইমাম শেখ ইয়াসিন ছিলেন কতটা অপ্রতিরোধ্য,
সেই বৃদ্ধকে হত্যা করতে যারা হেলিকপ্টার গানশিপ থেকে মিজাইল ছুড়তে পারে,
তারা তোমার এই উদ্ধত যৌবনের কাছে কেমন অসহায় কাপুরুষ।

ওরা জেনে গেছে তোমার প্রাণশক্তির উৎস,
ওরা জেনে গেছে এই ফিলিস্তিনের মাটিতেই ডেভিডের ছোড়া ঢিলের আঘাতে
কি ভাবে পরাজিত হয়েছে জালিম গোলিয়াথ–

হে ফাদি আবু সালাহ্
হে পাথর ছোড়া আবাবিল-
তাই আজ ওরা কেড়ে নিলো তোমার জীবন।

আহা, জান্নাতের সবুজ পাখি
তোমাকে দেখার আগে জানা ছিলো না
পা’হীন মানুষের পিঠে গজায় এমন উড়াল ডানা।

আমরা জানি তুমি ফিরে আসবে বলেই দিয়েছ এই উজাড় উড়াল,
আমরা প্রতীক্ষায় আছি, ঝাঁকে ঝাঁকে
ফিরে আসো. আবাবিল
ঝাঁকে ঝাঁকে…

Flag Counter


14 Responses

  1. শিমুল সালাহ্উদ্দিন says:

    অসামান্য কবিতা। ফিলিস্তিনিদের মুক্তি মানে মানবতার মুক্তি। মুক্তিকামী ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়াবার জন্য কবিকে অভিনন্দন। ভালোবাসা শিবলী ভাই।

  2. আশরাফুল কবীর says:

    কবিতার ভাষা অত্যন্ত হৃদয়গ্রাহী! খুবই ভালো লেগেছে কবিতাটি; কবিকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক একটি বিষয়কে কেণ্দ্র করে কবিতা উপস্থাপন করার জন্য।

  3. সাব্বির জাদিদ says:

    পড়তে গিয়ে লোম দাঁড়িয়ে গেল। অসাধারণ কবিতা।

  4. সাইফ says:

    শিবলী ভাই, আপনি সবসময়ই ছিলেন অসাধারণ!
    আপনাকে ধন্যবাদ, এত সুন্দর একটা কবিতা উপহার দেওয়ার জন্য!

  5. Austrik Aarzu says:

    অসাধারণ; এ যেন শুধু ফিলিস্তিন নয়, পৃথিবীর তাবৎ অত্যাচারিত শৃঙ্খলিত অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে মুক্তিকামী মানুষের ইশতেহার। পড়তে গিয়ে রক্তের মধ্যে বিপ্লবী স্পন্দন তীব্র ভাবে অনুভূত হচ্ছিল। কবিকে স্যালুট।

  6. মোহাম্মদ এরশাদ আলম says:

    আছসালামুআলাইকুম, যারা এইভাবে শহীদ হবে বা হয়েছে , তাদের কোন মুত্যৃ নেই, ওরা জীবিত, ওরা জান্নাতি, শহীদের মুত্যৃ হাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। হে বিশ্বের মুসলিম জনতা, আপনারা প্রস্তুত হন, জিহাদের ডাক চলে আসছে, ঘরে বসে থাকলে হবে না, আমাদেরকে ইসলামের জন্য, নিজের মাতৃভুমির রক্ষা জন্য জিহাদ এখন ফরজ হয়ে গেছে ।

  7. খন্দকার আহসান উদ্দিন says:

    ফাদি আবু সালাহরা শতাব্দির পর শতাব্দি বেঁচে থাকে। তারা বেঁচে থাকে আজীবন।

  8. আব্দুল্লাহ্ আল পারভেজ says:

    ধন্যবাদ লতিফুল ইসলাম শিবলি ভাইকে………
    “মহা বীর ফাদি আবু সালাহ আপনি কাজি নজরুল ইসলামের সেই বিদ্রোহী কবিতা” পৃথিবীতে আপনার জন্ম না হলে “বিদ্রোহী” শব্দের সঠিক অর্থই জানা হতো না।

    বিদ্রোহী রণ-ক্লান্ত
    আমি সেই দিন হব শান্ত,
    যবে উৎপীড়িতের ক্রন্দন-রোল, আকাশে বাতাসে ধ্বনিবে না,
    অত্যাচারীর খড়গ কৃপাণ ভীম রণ-ভূমে রণিবে না –
    বিদ্রোহী রণ-ক্লান্ত
    আমি আমি সেই দিন হব শান্ত!
    আমি বিদ্রোহী ভৃগু, ভগবান বুকে এঁকে দিই পদ-চিহ্ন,
    আমি স্রষ্টা-সূদন, শোক-তাপ-হানা খেয়ালী বিধির বক্ষ করিব-ভিন্ন!
    আমি চির-বিদ্রোহী বীর –
    আমি বিশ্ব ছাড়ায়ে উঠিয়াছি একা চির-উন্নত শির!

  9. ওমর আবাবিল says:

    পাথরসম কবিতা!

  10. offbd says:

    Oshadharon. Nobiji bolesen, jar hate amar parn tar kosom. Moriyom puttro khub tara tari fire asben. Ihudider hotta korben ebong nay bichar protistha korben….

  11. asraful islam says:

    ইসলাম সব ইহুদিকে শত্রু বলে কিনা এ প্রশ্নটা করার কারণ, ওপরে ‘অফবিডি’ মনতব্যে লিখেছেন, ‘মরিয়মপুত্র ফিরে আসবেন এবং ইহুদিদের হত্যা করবেন।’ তার মানে কোন ইহুদি? সবাই কিনা? আর সরাসরি পবিত্র কুরআনে এ বিষয়ে কী আছে? সেখানে কী দেশ, সময়কাল, ব্যক্তি নির্বিশেষে সব ইহুদির কথা বলা আছে? মহানবির (স.) সময় একদল ইহুদি তার প্রতি অন্যায়/ শত্রুতা করেছিল তা জানি। অভিজ্ঞ কেউ এ বিষয়ে আলোকিত করলে খুশি হবো।
    আমার আগের মনতব্যটি ছিল: আমার একটা প্রশ্ন আছে। ইসলাম কি সব ইহুদিকে (নারী, শিশু, মানবতাবাদী যেমন ডানপন্থী ইহুদিদের চরম অপছন্দের বিজ্ঞানী মোরদেকাই ভানুনু, ফিলিস্তিনিদের প্রতি সহানুভতিশীল ইহুদি বুদ্ধিজীবী বা বিবেকবান সাধারণ ইহুদি) শত্রু মনে করতে বলে কিনা?

  12. asraful islam says:

    কবিতাটি ভালো লাগলো। ফিলিসতিনিদের সংগ্রামে সাফল্য আসবেই। কাউকেই চিরদিন দাবায়ে রাখা যায় না। হয়তো মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিমদের ঐক্য থাকলে ইসরায়েল এত বাড়তেও পারতো না। নেতানিয়াহু গং নিক্সন-বুশদের মতোই ধিকৃত হবে ইতিহাসে। গায়ের জোরের নীতির জন্য ইসরায়েলকে একদিন মূল্য দিতেই হবে

  13. হাফিজুর রহমান says:

    অসাধারণ কবিতা।
    অনেক অনেক ধন্যবাদ।

  14. রনীল says:

    এতো দারুণ কবিতা অনেকদিন পর পড়লাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.