Post by: অলভী সরকার

অলভী সরকারের পাঁচটি চৌপদী

11 Nov , 2017  

১. মাছেরা আকাশে ওড়ে নাকি? মানুষেরা যা খুশি তাই নিচ্ছে ভেবে তুমুল সৃষ্টিছাড়া! এ তো গল্প, নিছক অল্প, থাকতেই পারে ডানা! গল্পের মাছ উড়তেই পারে। মানুষের ওড়া মানা। ২. একটি পা চৌকাঠে রেখে দাঁড়িয়ে আছি ঘরে সময় এখন অল্প ভীষণ নিঃস্ব ভরদুপুরে। প্রবল প্রেমে আহত হই প্রবল ঘৃণার মতো, মরবে জেনেও মানুষগুলো সারিয়ে তুলছে ক্ষত। […]

অলভী সরকারের পাঁচটি চতুর্পদী

17 Sep , 2017  

১. দেখছি না মানুষের মাথাগুলো নেই, দেখছি না তারপরও মাথাগুলো আছে। সুড়ঙ্গে নেমে গ্যাছে আগুনের পাখি, শিকারী আঙুলগুলো ঝুলন্ত গাছে। ২. তর্কের শেষ নেই কথার পেছনে আসুন তর্কে নামি, উঠিনি যেখানে। নামলেও ওঠা যায়, উঠলেও নামা, আমরা শিখেছি শুরু, শিখি নাই থামা! ৩. আমি চাই তুমি হও উড়ন্ত চিল রাজপথে থেমে যাক আহত মিছিল। উড়ছে […]

অতঃপর, তিনি এলেন ছুটির নিমন্ত্রণে

31 Jul , 2017  

বেশ ভোরে আমার ঘুম ভেঙে গেল। ঘর থেকে বেরিয়ে, লম্বা করিডোর ধরে এগোই, একেবারে শেষ মাথায় গ্রিল দেয়া বারান্দা। এখান থেকে তাকালে হলের মূল দরজা দেখা যায়। গার্ড মামা গেইট খোলেন নি এখনো। অত তাড়াও নেই, দরজা খোলার। গ্রীষ্মকালীন ছুটি চলছে বিশ্ববিদ্যালয়ে। অনেকেই বাড়ি গিয়েছে। আমরা অল্প কজন থেকে গিয়েছি হলে। ছুটি শেষ হলেই মাস্টার্স […]

জীবন্ত মানুষ এবং আটপৌরে ঘ্রাণের আখ্যান

29 Mar , 2017  

ঠাকুমা মারা গেছেন!!! যার শরীর জুড়ে ‘রতন’ জর্দার মাতাল করা ঘ্রাণ, সেই ঠাকুমা মারা গেছেন। দিব্যি সুস্থ মানুষ। লোকে বলে, অকারণে ছটফট করে, অবশেষে ততোধিক শান্ত হয়ে মারা গেছেন। সকালবেলা খালি পেটে খুব করে রতন জর্দা দিয়ে পান খেয়েছিলেন। যাতে প্রেম, তাতেই মৃত্যু। যে, মানুষের সবচেয়ে আপনজন, তারই তো সুযোগ থাকে ঘাতক হবার! ঠাকুমা কেন […]

ভাষা ব্যবহার ও মানসিক দাসত্বের খামখেয়ালি

26 Feb , 2017  

“কোনো ভাষারই চলে না শুধু নিজের শব্দে। দরকার পড়ে অন্য ভাষার শব্দ। কখনো ঋণ করতে হয় অন্য ভাষার শব্দ। কখনো অন্য ভাষার শব্দ জোর করে ঢুকে পড়ে ভাষায়। জোর যার তারই তো সাম্রাজ্য।” ভিন্ন ভাষার শব্দ প্রসঙ্গে হুমায়ুন আজাদ তাঁর কতো নদী সরোবর বা বাংলা ভাষার জীবনী গ্রন্থে এভাবেই বলছেন। এটা অবশ্যই বেদনাভারাক্রান্ত হওয়ার মতো […]

অলভী সরকারের একগুচ্ছ কবিতা

19 Jan , 2017  

আমি আর কোথাও থাকি না মাঝে মাঝে কিছুক্ষণ, কোথাও থাকি না আমি। ফিরে এলে দেখি, এক মিনিট, এক ঘণ্টা, সম্পূর্ণ একটি দিন পার হয়ে গ্যাছে। সিগনালে, সড়কবাতির নিচে আটকা পড়ে শ্রমিকের গাড়ি। রাতের শহর। কয়েকটি পুরুষ মশা গলে যাচ্ছে নখের খোঁচায় রক্তহীন। অতঃপর, সড়কবাতির নিচে তালাবন্ধ খুচরো দোকান, পোড়া সিগারেট, আধা-ভেজা টি ব্যাগের স্তুপ। অজস্র […]