অসুখ

মতিন বৈরাগী | ৩০ মার্চ ২০১৫ ৪:৫৯ অপরাহ্ন

অসুখ

যখন কোথাও একটু আলোক নেই স্বস্তি নেই
কেবল দেনা পাওনার হিসেব খরগোশ দৌড়
কেবল সত্যের মতো আলখেল্লার নিচে মিথ্যের দগদগে ঘা
তখন তো অসুখ আমায় সঙ্গ দেয় আমার শরীরের সাথে মিশে থাকে এবং
কত পড়ে যাওয়া দিনের শেষ আলোটুকু নিয়ে খেলা করে
আমি দেখি এক নির্জন কবি বসে আছে আমার জানালায়
আর লাশকাটা ঘরে যে শুয়ে আছে পাথরের মতো
তার ঝুলে-পড়া ঠোঁটে কালের তৃষ্ণা জমে জমে বরফ হয়ে গেছে
আর আমি হয়ে যাই প্রাচীন কালের ফসিল
কোনো এক অচেনা গুহায় পড়ে আছি অনন্ত কাল

কত কেউ আজ আর আমার পাশে নেই
তারা সব চলে গেছে দুধের খোঁজে দূরবনে
কত রকম হাত সাফাই কতো ওঠানামা
নিষ্পাপ নিষ্কাম মুখ
তাই দেখে আজরাইল তার ডানা ঝাড়ে
আর আবাবিল পাখি ফেলে দেয় ঠোঁটের পাথর

হায় অসুখ
জাপটে ধরেছো সেও তো এক প্রণয় তোমার সাথের
সমস্ত লোভ থেকে খানিকটাতো পিছলে পড়া
খানিকটা দেখালে ঘুরিয়ে এক জীবনে কত জীবনের রূপকথা
কত আলো আর অন্ধকার এক জীবনের-
৩০.০৩.১৫.

জ্বর ১
হায় জ্বর এতো যত্নে কই নিয়ে চলেছো আমাকে
যত পথ পাড়ি দেই ফুরায় না রাত্রি
কতো আসমানের সিঁড়িগুলো এঁকেবেঁকে উঠে গেছে
কতো তারকার বাড়িঘর মাখানো বাগান
কতো কেউ পাশ দিয়ে হাঁটছে
কতো হাত চারপাশে
পানি পড়ার শব্দ হাঁটু বেয়ে নামছে জলের স্রোত
আমি পথ হারিয়ে ফেলেছি, ফিরব কী করে
আমি কেবল ফিশফাঁশ শুনছি এবং একটা নল আমার বুকে
উঠছে নামছে
কে যেনো বলছে পানি, পানি দিন মাথা ভিজিয়ে
আমি সমুদ্রে ডুবে যাচ্ছি
হায় জ¦র আমি ফিরব কী করে আমার পথ হারিয়ে গেছে-

ঠিক তখন কেউ হাত বাড়িয়ে বললো
এতো উদ্বিগ্নতা কিসের, ফিরবার দরকারটাই বা কী
ওখানেতো এখন মিথ্যের রাজকীয় মহড়া চলছে
আর সবাই ডুবে আছে এক ঘোরের মধ্যে জ্বরের মতো
যে রকম সারাজীবন তারা আছে যে রকম সারাটা জীবন তারা থেকে যায়
আমি এক মহাশূন্যের মাঝে হারিয়ে থাকলাম আমার মাথায় ঝর্না লাফিয়ে পড়ছে
হাঁটু বেয়ে নামছে জলের স্রোত সমুদ্রের-
২৬.০৩.১৫

জ্বর ২
যখন জ্বরের ঘোরে হাঁটছি অজানা পথ
পথের পরে পথ কোথাও ধোঁয়াশা কোথাও টকটকে আলোকসজ্জা
কোথাও ভিজে স্যাঁতসেঁতে হাওয়ায় মেঘগুলো উড়ছে
পাখিরা ঘুরছে অচেনা তেপান্তরের
আর অদ্ভুত এক নির্জনতা গায়ে মেখে দাাঁড়িয়ে আছে বৃক্ষগুলো
না আকাশ না প্রান্তর না কোনো নদী যেন গতকালই পৃথিবীটার শুরু
আজই প্রথম অভিষেক আর একজন মানুষ হাঁটছি বদলে যাচ্ছে
প্রতিটি পদক্ষেপে ধূসর মাটির গন্ধ
আর অনন্ত সময়গুলো জমে জমে কয়েকটা বিন্দুতে নাচছে
পায়ে তার সভ্যতার নিক্বণ
প্রজাপতিগুলো নানা রঙা পাখায় উড়ে ঘুরে যেতেই
ফুটছে ফুল পাহাড় পর্বতের মৌনতায়
সমুদ্র গড়াচ্ছে বদলাচ্ছে তাপ বরফ গলছে
স্থির হয়ে আছে আদি পৃথিবীর রূপ বদলে যাবে বলে
আর আমি যেই একটি ডাল ভেঙ্গে কেবল হাতিয়ার করে ফেললাম
ঝুলে থাকা ফলগুলো পাড়তে
বদলে গেলো দৃশ্যপট, আর তার পর আমি এমন এক পৃথিবী দেখছি
যেখানে মহাপ্রতাপে হাঁটছে বিখ্যাত সব স্বৈরাচার

জ্বরের ঘোরে আমি কেবল সেই সব স্বৈরাচারের মাথাগুলো গুণছি
যা তারা ফেলে গেছে মুদ্রায় আর প্রান্তর হয়ে উঠছে লাল
বৃক্ষগুলো বদলাতে বদলাতে হয়ে গেছে ঝগড়াটে গাছ
হায় জ্বর, জ্বর হলে কতোকিছু দেখে নেয়া যায়
কতো রকম মুখ সত্যের বিচিত্র কপাট-

২৭.০৩.১৫.
Flag Counter

প্রতিক্রিয়া (2) »

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন মেহেদী মাসউদ — এপ্রিল ১০, ২০১৫ @ ৬:৪৯ অপরাহ্ন

      যদি তোর ডাক শুনে—-তবে একলা চলো রে। কবি মতিন বৈরাগী সারা জীবন তার বিনির্মিত পথেই হেঁটে চলছেন। অসুখের ঘোরের মধ্যেও তাঁর উপলব্ধির বাইরে কোন স্থানকে দেখতে পারেননি। এখানেও সেই স্বৈরাচারে মাথা গণনার কবিতার শিল্পকে এড়াতে পারেননি। অনেকদিন পরে তিনটি নতূন কবিতা তাঁর একান্ত পাঠকদেরকে আনন্দ দেবে। বয়সের প্রান্তে এসে ক্লান্ত দেহ মনে আজও বৃক্ষগুলো ঝগড়াটে গাছ হয়ে যাবার দৃশ্যটি তাঁর কাছে স্পষ্ট। সময়কে ধারণ করবার এ অভিজ্ঞতা তার সমস্ত কবিতা জুড়ে। এখানেও তার ব্যতিক্রম নয়। কবির সুস্থতা একান্ত কাম্য।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Ali Habib — এপ্রিল ১১, ২০১৫ @ ১১:৩২ পূর্বাহ্ন

      আগ্রহ নিয়ে মতিন বৈরাগীর কবিতা পাঠ করি। তাঁর বিশ্বাস তিনি তুলে ধরেন কবিতায়। ব্যতিক্রম এখানেও ঘটেনি। এই আলো কিংবা স্বস্তির ঘাটতি, যা তিনি তুলে ধরেছেন তাঁর কবিতায়, এ তো চিরকালের বাস্তবতা। কিংবা অজানা পথে ঘুরে ফেরা_এ যেন আমাদের প্রতিদিনের চেনা দৃশ্য। আস্তবতাকে তিনি তুলে ধরেন অসামান্য দক্ষতায়। অভিনন্দন কবি।

আর এস এস

আপনার প্রতিক্রিয়া জানান

 
প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন:
১. ছদ্মনামে করা প্রতিক্রিয়া এবং ব্যক্তিগত পরিচয়ের সূত্রে করা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না। বিষয়সংশ্লিষ্ট প্রতিক্রিয়া জানান।
২. বাংলা লেখায় ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
৩. পেস্ট করা বিজয়-এ লিখিত বাংলা প্রতিক্রিয়া ব্রাউজারের কারণে রোমান হরফে দেখা যেতে পারে। তাতে সমস্যা নেই।
 


Disclaimer & Privacy Policy  |  About us  |  Contact us

© bdnews24.com