ইস্তানবুলে ঘোরাঘুরি (কিস্তি ১)

মেখলা হক | ২৮ নভেম্বর ২০১০ ৩:৪৮ অপরাহ্ন

প্রথম দিন । ২৬ নভেম্বর ২০১০

mh2.jpg
হোটেল আরারাতের জানালা থেকে ব্লু মস্ক

২৬ নভেম্বর ২০১০ তারিখে আমরা তিনজন ইন্তানবুল এসে পৌঁছালাম। গত বছরে শীতে এসেছিলাম, আর এই বছরেও এই শীতেই আসা হলো আমার। টেম্পারেচার ১২-১৬ হলেও কনকনে বাতাস হাড্ডিতে গিয়ে লাগে। আমরা ব্লু মস্কের সবচেয়ে কাছের ছোট্ট একটা হোটেলে উঠেছি। আমার কাছে এখানকার সবচেয়ে রঙিন আর বৈচিত্র্যময় এলাকা এটা। সুলতানআহমেত — ব্লু মস্ক, টপকাপি, হায়া সোফিয়া আর প্রায় ৬০০ বছরের পুরনো গ্র্যান্ড মার্কেট সবকিছুই এখন হাতের মুঠোয়।

গতবারে অফিসের কাজে মাত্র ৩ দিনের জন্য ছিলাম। শেষ দিনে দৌড়ে দৌড়ে ২/৩ টা জায়গা ছাড়া কিছুই দেখা হয়নি। এবার ভালো করে ঘোরা, দেখা, উপভোগ করা–সব হবে। শুনেছি তুরস্কের যে কোনো গয়না খুব সুন্দর হয়। না কিনলেও এটা দেখার খুব শখ। আসতে আসতে দিদিভাই (আমার বড় বোন), চন্দনা আপা, আর আমি শুধু জল্পনা-কল্পনা করতে করতে এসেছি কী কী করা যায়।

sd.jpg
তুরস্কের বিখ্যাত সুফি নাচ (Swirling dervish)

রাতে এয়ারপোর্ট থেকে হোটেলে পৌঁছাতে পৌঁছাতে এখানকার রাত ৮টা। হোটেলের নাম ‘আরারাত’। ছোট্ট একটা ৩ তলা হোটেল। আর আমাদের জানলা থেকেই ব্লু মস্ক। রাতে মিনারগুলো আলোয় সুন্দর লাগছে। আমরা প্রচণ্ড ক্ষুধার্ত। কোনো মতে ব্যাগ রুমে রেখেই দৌড়। রাস্তার উল্টো দিকের বাজারের রেস্তোরাঁয় গেলাম। যাবার পথের প্রতিটা ছোট ছোট দোকানে আমার বোন আর চন্দনা আপা আটকে যেতে থাকলো। বাইরে থেকেই এখানকার গয়না আর কাচের জিনিসের বৈচিত্র্য দেখে। কেনার থেকে দেখার আনন্দই বেশি। যে দোকানে খেতে গেলাম (রাস্তার উপরেই খোলা কিন্তু তাঁবু ধরনের ছাদ) দেখি তুরস্কের বিখ্যাত সেই সুফি নাচ (Swirling dervish) আর গান হচ্ছে। আমাদের আর পায় কে! কিন্তু ঠাণ্ডা বাতাসের জন্য বেশিক্ষণ বসতে পারলাম না। তৈরি ছিলাম না তখন অতো ঠাণ্ডার জন্য।

হোটেলে ফিরে একটা আরামের ঘুম!

(কিস্তি ২)

হোটেল আরারাত, ইস্তানবুল, টার্কি; ২৭ শে নভেম্বর ২০১০

ওয়েব লিংক
মেখলা হক: আর্টস

—-
ফেসবুক লিংক । আর্টস :: Arts

free counters

সর্বাধিক পঠিত

প্রতিক্রিয়া (3) »

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন জাহানগীর — নভেম্বর ৩০, ২০১০ @ ৫:৪৬ অপরাহ্ন

      আপনার লেখা পড়ে ভাল লেগেছে । ধন্যবাদ রইলো লেখাটার জন্য।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন sapno77 — december ৬, ২০১০ @ ৬:৫৮ অপরাহ্ন

      পড়ে খুব ভালো লাগলো, আরো ভাল হতো যদি ভ্রমনের ভিসা সংক্রান্ত তথ্য, থাকা-খাওয়ার খরচাদির সুন্দর ভাবে বিশ্লেষণ করে দেয়া হতো, তবুও পড়ে খুব ভালো লাগলো। ধন্যবাদ।

    • প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন Arif Khan — নভেম্বর ৩, ২০১১ @ ২:১৩ পূর্বাহ্ন

      @sapno77
      আমি আপনার সাথে একমত প্রকাশ করছি।

আর এস এস

আপনার প্রতিক্রিয়া জানান

 
প্রতিক্রিয়া লেখার সময় লক্ষ্য রাখুন:
১. ছদ্মনামে করা প্রতিক্রিয়া এবং ব্যক্তিগত পরিচয়ের সূত্রে করা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না। বিষয়সংশ্লিষ্ট প্রতিক্রিয়া জানান।
২. বাংলা লেখায় ইংরেজিতে প্রতিক্রিয়া বা রোমান হরফে লেখা বাংলা প্রতিক্রিয়া গৃহীত হবে না।
৩. পেস্ট করা বিজয়-এ লিখিত বাংলা প্রতিক্রিয়া ব্রাউজারের কারণে রোমান হরফে দেখা যেতে পারে। তাতে সমস্যা নেই।
 


Disclaimer & Privacy Policy  |  About us  |  Contact us

© bdnews24.com