পাঠ্যসূচিতে মেধাস্বত্ব আইন অন্তর্ভুক্ত করার দাবি

কালাম আজাদ | ৩১ জানুয়ারি ২০১৪ ১১:১৪ অপরাহ্ন

কপিরাইট আইনের প্রয়োগ নেই
কপিরাইট আইন প্রয়োগ করে সরকার কোটি কোটি টাকা আয় করতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন কপিরাইট বোর্ডের সদস্য জাতিসত্তার কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় এক সেমিনারে তিনি বলেন, এ আইন প্রয়োগ না করার কারণে কপিরাইট বোর্ডও ঠুঁটো জগন্নাথে পরিণত হয়েছে। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অধীনে কপিরাইট অফিসের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশে কপিরাইট: সমীক্ষা, সুরক্ষা ও সুফল ’ শীর্ষক সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে তিনি একথা বলেন। (সম্পূর্ণ…)

সীগার সান্নিধ্যে এক সন্ধ্যা

আলম খোরশেদ | ৩১ জানুয়ারি ২০১৪ ১২:৫৭ অপরাহ্ন

ভূমিকা: বিশ্ববিশ্রুত গণমানুষের সঙ্গীতশিল্পী পীট সীগারের প্রয়াণের খবর পেয়ে অনেক স্মৃতি ভিড় করে আসছিল মনে। ন্যুয়র্কে খুব সামনে থেকে তাঁর অনুষ্ঠান দেখা, বিভিন্ন প্রতিবাদী মিছিল-সমাবেশে তাঁর অনুবর্তী হওয়া, কোলকাতার বন্ধু সুদীপ্ত চট্টোপাধ্যায়ের পরিচালনায় আমাদের আরেক প্রতিবাদী, প্রিয় শিল্পী কবীর সুমনকে নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র Free to Sing নির্মাণকালে তাঁর সান্নিধ্য পাওয়া, তাঁর অসাধারণ আত্মজীবনী Where have all the flowers gone? পাঠের আনন্দময় অভিজ্ঞতা ও পত্রপাঠ তার আলোচনা লেখা ইত্যাকার অনেক স্মৃতি। মনে পড়ে ১৯৯৩ সালে তাঁর অনুষ্ঠান শোনার অভিজ্ঞতা নিয়ে একখানি ছোট্ট নিবন্ধও লিখেছিলাম ঢাকার কোন এক কাগজের জন্য। সীগার অনুরাগীদের জন্য সেই অভিজ্ঞতাটি বিবরণ এখানে পত্রস্থ হলো। (সম্পূর্ণ…)

যোগ্য সম্পাদনা ও প্রকাশনা সৌষ্ঠবে পূর্ণ বুদ্ধাবতার

রাজু আলাউদ্দিন | ৩০ জানুয়ারি ২০১৪ ৮:৫৩ পূর্বাহ্ন

বুদ্ধদেব বসু আসার আগে পর্যন্ত বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসের অর্ধেকটা সময় রঞ্জিত হয়ে আছে অনুবাদের নানান রঙে। কবি মুহম্মদ নূরুল হুদার ভাষায় “১৫০০ খ্রিষ্টাব্দ থেকে আজ পর্যন্ত বাংলা অনুবাদের বয়স ৫০০ বছরের মতো। এই কালপরিধি সমগ্র বাংলা সাহিত্যের প্রায় অর্ধ-বয়সী।” (বুদ্ধদেব বসু অনুবাদ কাব্যসমগ্য, সম্পা: মুহম্মদ নূরুল হুদা, অবসর প্রকাশনী ২০১৩, পৃ: আঠার)
৫০০ বছর কম সময় নয়। আর এই দীর্ঘ সময়ের শুরু থেকেই অনুবাদ পাঠকের আনুকূল্য পেয়েছিলো বলেই তা ক্রমশঃ বেগবান স্রোতের রূপ ধারণ করে আজ আমাদের কালে এসে নানা শাখা-প্রশাখায় ছড়িয়ে পরেছে। কিন্তু লক্ষ্য করলেই দেখবো, অনুবাদ শাখাটি জনগ্রাহিতার মাধ্যমে বিস্তার লাভ করলেও, বুদ্ধদেব বসুর আগে পর্যন্ত সাহিত্যের অভিজাতদের দরবারে এ ছিলো অপাংক্তেয় ও উপেক্ষিত। বুদ্ধদেবের অপার নিষ্ঠা, অপরিমের পাণ্ডিত্য, বিশ্বমানের সাহিত্যরুচি আর সৃজনশীলতার যাদুকরী স্পর্শে অনুবাদ প্রথমবারের মতো আগ্রাসী চরিত্র নিয়ে আবির্ভূত হলো। (সম্পূর্ণ…)

বিশ শতকের আধুনিক লাতিন আমেরিকান সাহিত্য–আদি পর্ব

যুবায়ের মাহবুব | ২৮ জানুয়ারি ২০১৪ ৭:৪২ অপরাহ্ন

রবের্তো গন্সালেস এচেবাররিয়া একজন কিউবান-আমেরিকান সাহিত্য গবেষক ও লেখক। ১৯৭০ সালে প্রখ্যাত ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি খেতাব লাভ করেন। তার গবেষনার মূল ক্ষেত্র লাতিন আমেরিকান সাহিত্য (আধুনিক এবং ঔপনিবেশিক) এবং ১৬শ ও ১৭শ শতকে স্পানঞার স্বর্ণযুগের সাহিত্য। এচেবাররিয়া বর্তমানে ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। স্পানঞা এবং লাতিন আমেরিকার সাহিত্য নিয়ে অসংখ্য গবেষণা-প্রবন্ধ ও গ্রন্থের রচয়িতা। সের্বান্তেস এবং কিউবার আলেহো কার্পেন্তিয়ের-কে নিয়ে বই লিখেছেন। তার লিখিত ‘মডার্ন ল্যাটিন আমেরিকান লিটারেচার’ বইটি ২০১২ সালে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি প্রেস থেকে প্রকাশিত হয়। এই রচনাটি সেই বইয়ের অংশবিশেষের অনুবাদ। অনুবাদ করেছেন যুবায়ের মাহবুব. বি.স. (সম্পূর্ণ…)

স্কুলের দিনগুলি: ইডেন স্কুলে

সনজীদা খাতুন | ২৭ জানুয়ারি ২০১৪ ৬:৫৪ অপরাহ্ন

আমার চার বছরের বড়ো সেজদি আর আমি পড়তাম ইডেন স্কুলে। সেজদির সঙ্গেই পড়তেন লায়লাদি– লায়লা আরজুমান্দ বানু। কত রবীন্দ্রসঙ্গীত যে উনি জানতেন কী বলব। ‘কাঁদার সময় অল্প ওরে, ভোলার সময় বড়ো, খাবার দিনে শুকনো বকুল মিথ্যে করিস জড়ো’ গাইতেন বিদায় সংবর্ধনার অনুষ্ঠানে। আরো এক গান ছিল ‘কেন রে এতই যাবার ত্বরা কেন?’ (সম্পূর্ণ…)

মৃণাল বসুচৌধুরীর গুচ্ছ কবিতা

মৃণাল বসুচৌধুরী | ২৬ জানুয়ারি ২০১৪ ১১:৫২ অপরাহ্ন

দিতে পারি

চেয়েছিলে আনন্দলহরী
দিতে পারি কাশবন
রিনিঝিনি রূপোর নূপুর
দিতে পারি শিউলির ছায়া
ভোরের শিমূল
পরাক্রমী নদীর হিল্লোল
দিতে পারি নীল সরোবর (সম্পূর্ণ…)

মনস্বী ও প্রগতিশীল খালেদা সালাহ্উদ্দিন

বুলবুল মহলানবীশ | ২৫ জানুয়ারি ২০১৪ ৮:৩৮ অপরাহ্ন

ছিপপিছে গড়ন, চোখে কালো সানগ্লাস। যে কোনো সাহিত্যবাসর কিংবা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে এক ঝলকেই তাঁকে চেনা যেত। দেখা হলেই জিজ্ঞেস করতেন:

“কেমন চলছে লেখালেখি, সংগীত চর্চা?”

একটি দুর্লভ গুণ ছিল তাঁর। অকপটে প্রশংসা করতে পারতেন। পরশ্রীকাতরতা একেবারেই ছিল না তাঁর মধ্যে। পেশায় ছিলেন অর্থনীতির অধ্যাপক। বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী কলেজ ইডেনের অর্থনীতির অধ্যাপক ছিলেন তিনি। অত্যন্ত প্রিয় শিক্ষক ছিলেন ছাত্রীদের কাছে। তাঁর বাচনভঙ্গী, তাঁর নিয়মানুবর্তিতা, তাঁর ব্যক্তিত্ব এবং তাঁর আকর্ষণীয় ও মার্জিত পোশাক পরিচ্ছদও অনুকরনীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিল কলেজের ছাত্রী এবং তাঁর সহকর্মীদের কাছে। অমায়িক, কিন্তু দৃঢ় চরিত্রের মানুষ ছিলেন খালেদা সালাহ্উদ্দিন। (সম্পূর্ণ…)

আমার প্রিয় ব্যক্তিত্ব খালেদা সালাহউদ্দিন

নয়ন রহমান | ২৩ জানুয়ারি ২০১৪ ১১:৩৬ অপরাহ্ন

সৃষ্টিশীল ও সমাজহিতৈষী মানুষের শরীরীজীবন সীমিত হলেও তাদের আলোকসত্তা যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকে গণমানুষের মনে। এ জন্যই কবি সাহিত্যিক, বিজ্ঞানী এবং শিল্পীরা বেঁচে থাকেন যুগযুগ ধরে মানুষের অন্তরলোকে। ড. খালেদা সালাহউদ্দিন (১৯৩৫-২০১৪) তার সৃষ্টিকর্মের জন্য, তাঁর অনন্যসাধারণ প্রজ্ঞা ও জ্ঞানের জন্য অসাধারণ সাহিত্য কর্ম এবং সদাচারের জন্য দৈহিক মৃত্যুর পর বেঁচে থাকবেন তাঁর অনুরাগীদের মনে। (সম্পূর্ণ…)

গোলাম শফিকের একগুচ্ছ কবিতা

গোলাম শফিক | ২২ জানুয়ারি ২০১৪ ২:৩১ অপরাহ্ন

দুঃখ ভারাক্রান্ত অবাধ্য কবিতারা

আমার দুঃখ ভারাক্রান্ত কবিতারা অবাধ্যও হয়
বলি এতোটা নুয়োনা, হয়ে উঠছোনা তো কি
আজকাল দুর্বলের দেখো আস্ফালন
এসব দেখেও কবিতা কুমারী
অবগুন্ঠন ভেদ করে দাঁড়াও না কেন?
এমন ভাবে নুয়েছো যে, নার্সিসাস মনে করে
কেউ মুখও ফিরিয়ে নিতে পারে। (সম্পূর্ণ…)

মৃত্যু তাঁর মৃত্যু নয়

ড. মনিরুজ্জামান | ২০ জানুয়ারি ২০১৪ ৮:৪৫ অপরাহ্ন

habibur-rahman.gifতিনি নেই, তবু তাঁর কথা রয়ে গেছে । ১৯৫৭-তে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকেও যেমন শুনেছিলাম তাঁর কথা । তিনি নেই, তবু আছেন; মুখে মুখে এক গল্পে । মানতে পারি নি সে গল্পটা । এ কেমন কথা,- বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা ছাত্রটি গেটে দাঁড়িয়ে সিগ্রেট বিক্রি করছে । কেন এই অভিনব বিদ্রোহ! সরকার তাঁর চাকুরি নিষিদ্ধ করে দিয়েছে এ তারই প্রতিবাদ । (সম্পূর্ণ…)

স্কুলের দিনগুলো: ইডেন স্কুলে

সনজীদা খাতুন | ১৯ জানুয়ারি ২০১৪ ৬:১৯ অপরাহ্ন

এবারে তৃতীয় স্কুল, ইডেন বালিকা বিদ্যালয়ের পালা। ভর্তি হওয়া ছিল কঠিন। ইংরেজি, অঙ্ক, বাংলা তিন বিষয়েই পাস করতে হবে। আবার ইংরেজি আর অঙ্কের ফল অতি করুণ। মায়ের বিশ্বাস ছিল ‘একবার না পারিলে দেখ শতবার’। ভর্তির জন্যে পরীক্ষা দিতেই হতো। হয় না হয় না হয় না– শেষে ক্ষীরোদমনি দিদির বাংলা পরীক্ষায় রচনা লিখে তাঁর সন্তোষ অর্জন করা গেল। তিনি এতই খুশি হয়েছিলেন যে ইংরেজি আর অঙ্কে পাস না করেও বৈতরণী পার হতে পারলাম! (সম্পূর্ণ…)

বইয়ের অনলাইন খবর হতে পারে বুদ্ধিবৃত্তির নতুন ঠিকানা

মোঃ আজিজুর রহমান | ১৮ জানুয়ারি ২০১৪ ৭:৪৪ অপরাহ্ন

1.gifযে বন্ধু কখনোই কোনো মানুষের অপকার করে না, শুধু আলো ছড়িয়ে জীবনের অন্ধকার দূর করে তার নাম বই। বইয়ের সাথে যার গাঢ় বন্ধুত্ব, একাকীত্ব তাকে স্পর্শ করে না । নতুন বইয়ের কাগজের গন্ধ, অনেক পুরাতন বইয়ের পাতার ভাজ সবার মতো আমাকেও উদ্বেলিত করে। লাইব্রেরীর সাজানো তাকে কিংবা বইয়ের দোকানে ঘুরে প্রয়োজনীয় বই পাওয়া অনেক সময় কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে। যখন জানলাম বইয়ের খোঁজ খবর নিয়ে নতুন ওয়েব ম্যাগাজিন boinews24.com হচেছ তখন তাদের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখার জন্য চলে গেলাম শাহবাগের পাঠক সমাবেশ সেন্টারে। (সম্পূর্ণ…)

পরের পাতা »

Disclaimer & Privacy Policy  |  About us  |  Contact us

© bdnews24.com