মুহম্মদ নূরুল হুদা: তাঁর জন্মদিনে এক চকিতদৃষ্টিতে

আহমাদ মাযহার | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ১১:১৮ পূর্বাহ্ন

কবি মুহম্মদ নূরুল হুদাকে চিনি গত শতাব্দীর সত্তরের দশক থেকে। মনে পড়ছে সেই সময়ের একদিন আবিস্কার করেছিলাম আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ সম্পাদতি এক দশকের কবিতা (১৯৭৬) সংকলনটিকে। ষাটের কবিদের সকবিতা চিনে নিতে আমাকে সহায়তা করেছিল এই বই। মুহম্মদ নূরুল হুদার কবিতাও অন্তর্ভুক্ত ছিল সেখানে। হুদাভাইয়ের কবিতা সম্পর্কে বইয়ের ভূমিকায় আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ লিখেছিলেন, ‘…সমকালীনতার স্ববিরোধকে পুরোপুরি কাটিয়ে গিয়ে যাঁরা চেতনা ও রূপকুশলতার সুস্থিত ও সামঞ্জস্যময় কবিতা-জগৎ রচনা করতে পেরেছেন তাঁদের মধ্যে মুহম্মদ নূরুল হুদা…র নাম সবচেয়ে আগে আসবে। হুদার সুস্মিত সংহতি…সময়ের…বিশৃঙ্খল পটভূমিতে মূল্যবান।’ (সম্পূর্ণ…)

তামাটে জাতির রোদেপোড়া জন্মইতিহাস

বিনয় বর্মন | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ১০:১৩ পূর্বাহ্ন

(কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা শ্রদ্ধাস্পদেষু)

এসেছে তামাটে জাতি পলিদেহ মাঠেঘাটে রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে
ধুকে ধুকে টিকে থাকে ঝাড়ফুঁক তুকতাকে বীজমন্ত্র মাদুলি-তাবিজে
আঁশটে গন্ধে ভারী নদীখালে বেড়িয়েছে স্বপ্নের মিহিজাল ফেলে
গামছা নেংটিপরা কলাপাতা চিড়াদই রুচিজ্ঞান বড্ড সেকেলে। (সম্পূর্ণ…)

কবি মুহম্মদ নূরুল হুদার কাব্য: প্রাণ-ছোঁয়া আনন্দের পলিমাটি

মতিন বৈরাগী | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ১০:০৮ পূর্বাহ্ন

‘যতোদূর বাংলা ভাষা ততোদূর এই বাংলাদেশ’

অসামান্য সুন্দর ব্যাঞ্জনাময় এই পঙক্তি । ষাট দশক থেকে শুরু করে আজও অবধি যে ক’জন মেধাবী কবি বাংলা কাব্য-ভূবন কাঁপিয়ে কবিতা নির্মাণে মেধার সাক্ষর রেখে আসছেন কবি মুহম্মদ নুরুল হুদা তাদের মধ্যের অন্যতম প্রধান কবি। (সম্পূর্ণ…)

কবিকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা

নিজামউদ্দিন জামি | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ৯:৪৯ পূর্বাহ্ন

কবি মুহম্মদ নূরুল হুদার জন্ম ১৯৪৯ খ্রিস্টাব্দে কক্সবাজারের ঈদগাহের পোকখালী গ্রামে। তাঁর লেখাপড়া ঈদগাহ উচ্চ বিদ্যালয় (মাধ্যমিক, ১৯৬৫), ঢাকা কলেজ (উচ্চ মাধ্যমিক, ১৯৬৭) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (অনার্স-মাস্টার, ১৯৭১-৭২)। তাঁর সাথে আমার ঘনিষ্ঠতা প্রায় একযুগের। তবে কবি হিশেবে তাঁকে চিনি ৯০-এর দশকের গোড়াতেই। বন্ধু ফজল উশ্ শিহাব আমাকে একটি ছোট্ট বই পড়তে দিয়েছিল– আমরা তামাটে জাতি। তখন মজা পাই নি, এখন পাই। (সম্পূর্ণ…)

দরিয়ানগরের কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা

ড. মনিরুজ্জামান | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ৯:০৭ পূর্বাহ্ন

১. দাখিলা বয়ান
কবি নূরুল হুদা দরিয়ানগরের কবি। দরিয়ানগর শুধু কক্সবাজারই নয়, ঈদগাহ-ও। এইখানেই কবির জন্ম (৩০ সেপ্টেম্বর ১৯৪৯), গ্রামের নাম পূর্ব পোকখালি। ঈদগাহ হাইস্কুল থেকে কুমিল্লা বোর্ডে ম্যাট্রিকে (ম্যাট্রিক পরীক্ষা) তিনি দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে মেধার পরিচয় রেখেছিলেন। তিনি ঢাকা কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতি ছাত্র (ইংরেজিতে এম.এ)। (সম্পূর্ণ…)

প্রিয় কবি নূরুল হুদা

আলম তালুকদার | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ১২:৪১ পূর্বাহ্ন

বাংলা ভাষার লেখক কুলে
দ্রাবিড় পুরুষ দাঁড়ি-চুলে
যার ঠিকানা সাগর কূলে
জন্ম-শেকড় যায় না ভুলে। (সম্পূর্ণ…)

মুহম্মদ নূরুল হুদা বঙ্গোপসাগর ও মৈনপাহাড়ের নীল ঈগল

মনির ইউসুফ | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ১২:২৭ পূর্বাহ্ন

বাংলা সাহিত্যের ষাটের অন্যতম প্রধান কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। জন্ম দক্ষিণের দরিয়ানগরে। পাহাড়-সাগর-নদী-চারণভূমি-লবণমাঠ-বিস্তীর্ণ উপকূল-ঝাউবন-প্যারাবন-রেতবালির দ্বীপ-রাখাইন উপজাতি, জাদি-প্যাগোডা-কিয়াং-মন্দির-মসজিদ-মিঠাপানের বরজ– সবমিলে এমন এক বৈচিত্রময় ভূখণ্ডে তার বেড়ে উঠা; যা যে কোন সংবেদনশীল মানুষকে কবি হতে উদ্বেলিত করে তোলে। (সম্পূর্ণ…)

মুহম্মদ নূরুল হুদার সমুদ্রবন্দনা

ফরিদ আহমদ দুলাল | ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ১২:১০ পূর্বাহ্ন

বাংলা কবিতার প্রাগ্রসর মেধার কবিকণ্ঠ মুহম্মদ নূরুল হুদার কবিতায় প্রবেশ করলে দেখবো সমুদ্রের প্রতি পক্ষপাত; বিশেষ করে একজন পাঠক, যিনি তাঁর আদ্যোপান্ত খোঁজ রাখেন, দেখবেন জাতিসত্তারকবি অভিধায় খ্যাত মুহম্মদ নূরুল হুদার কাব্যবৈশিষ্ট্য কেবল নয়, তাঁর গদ্যেও সমুদ্র এসেছে বারবার। (সম্পূর্ণ…)

কীর্তিমান সাহিত্য বিশারদ আজও জীবিত

মুহাম্মদ শামসুল হক | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ১১:০২ অপরাহ্ন

পল্লীর মানুষ ও তার সাহিত্য-সংস্কৃতিকে অমরত্ব দান করতে হলে তাদের ভালবাসতে হয়, জানতে হয় তাদের সাহিত্য-সংস্কৃতির অতীত ইতিহাস, উপলব্ধি করতে হয় তাদের চাহিদা। সর্বোপরি সব কাজেই নিজেকে পল্লীর মানুষের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার মানসিকতা থাকতে হয় একজন সাধক পুরুষের।

এমনই একজন সাধক পুরুষ মুন্সি আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ। তাঁর জন্ম ১৮৭১ সালে পটিয়ার সবুজে ঘেরা সুচক্রদন্ডী গ্রামে। মুন্সি তাঁর বংশগত উপাধি এবং সাহিত্য বিশারদ হচ্ছে সুধী সমাজের পক্ষ থেকে তাঁকে দেওয়া উপাধি। (সম্পূর্ণ…)

অন্য এক হুমায়ূন আহমেদ

নওশাদ জামিল | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ৭:১৯ অপরাহ্ন

হুমায়ূন আহমেদের প্রয়াণের পর বরেণ্য এ কথাসাহিত্যিককে নিয়ে, তাঁর সৃজনকর্ম নিয়ে লেখালেখি হচ্ছে বিস্তর। কেউ লিখছেন সাহিত্যসমালোচনা, কেউ স্মৃতিচারণা। আবার কেউ হুমায়ূনের আলোকচিত্র, চিঠি, চিত্রকর্ম নিয়ে প্রদর্শনী করছেন, লেখালেখি করছেন। আবার কেউ তাঁর চলচ্চিত্র, নাটক নিয়ে লিখছেন বিশাল সব প্রবন্ধ। আয়োজন করছেন বিভিন্ন প্রদর্শনীর। (সম্পূর্ণ…)

ঝর্না রহমানের কবিতা

ঝর্না রহমান | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ৮:০৯ অপরাহ্ন

ঘুড়িকাব্য

পরীদের পাখা থেকে প্রতিদিন খুলে নিই সোনার পালক
কতবার বুনি আমি বেদনার বারান্দায় নকশি চাটাই
আলোকের যান নিয়ে রঙধনু পথ ধরে নিপুণ চালক
ছিন্ন করে চলে যায় আমার রঙের ঘুড়ি সুতোর লাটাই। (সম্পূর্ণ…)

নোরা : একটি নারীবাদী কবিতা

মাসুদুজ্জামান | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ৯:৫৫ অপরাহ্ন

My book is poetry, and if it is not poetry, then it will be.
Henrik Ibsen

বিশ্বসাহিত্যের এক অবিস্মরণীয় সৃষ্টি হেনরিক ইবসেনের (১৮২৮-১৯০৬) আ ডলস্ হাউজ (১৮৭৯)। নোরা হেলমার চরিত্রকে ঘিরেই এর যত খ্যাতি। শেক্সপীয়রের কালজয়ী নাটকের চরিত্রগুলোর পরে আর কোনো নাট্যচরিত্র নিয়ে এতটা আলোড়ন তৈরি হয়নি। শেক্সপীয়র তাঁর নাটকের কাহিনী গ্রহণ করেছিলেন ইতিহাস থেকে। অন্যদিকে সমকালীন মানুষের জীবনযাপন ছিল ইবসেনের নাট্যকাহিনীর উৎস। ইবসেনকে তাই বলা হয় ইউরোপীয় বাস্তববাদী নাট্যধারার জনক। লক্ষ করলে দেখা যাবে নোরা চরিত্রের মাধ্যমেই এই বাস্তবতার চূড়ান্ত অভিব্যক্তি ঘটেছিল। নোরা এমনই এক সৃষ্টি, কালের পরম্পরায় যার আবেদন এখনও নিঃশেষ হয়ে যায়নি। (সম্পূর্ণ…)

পরের পাতা »

Disclaimer & Privacy Policy  |  About us  |  Contact us

© bdnews24.com