মামুন ও তাঁর মুখের পৃথিবী

সৈকত হাবিব | ৩০ জুন ২০১৩ ৭:০৯ অপরাহ্ন

নাসির আলী মামুন বাংলাদেশের সৃষ্টিশীল আলোকচিত্রায়নে এক অগ্রবর্তী শিল্পী । আজ পহেলা জুলাই তার ৬০ তম জন্মদিন। তার প্রতি আমাদের সপুষ্পক শুভেচ্ছা বি. স.

দৈবের বশেই হোক বা দৃষ্টিভঙ্গির কারণেই হোক, যা কিছু আধুনিক, বিজ্ঞানময় এবং প্রগতির– বাঙালি মুসলমানকে এগুলো পেতে বড় বেশি নিষেধাজ্ঞা আর ধর্মের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করতে হয়েছে। তাই ইংরেজি শিক্ষাই বলি, পশ্চিমা বিশ্বের মুক্ত হাওয়াই বলি কিংবা বলি বিজ্ঞান-প্রযুক্তি-প্রগতির কথা, সবকিছুতেই আমাদের শুরু অনেক বেশি দেরিতে। তার উপর পূর্ববঙ্গের দুর্ভাগ্য হল, পশ্চিম পাকিস্তানের জোয়াল, যা ধর্মের ছদ্মাবরণে অধর্মের চর্চা করেছে আর তাদের শোষণক্ষমতাকে অব্যাহত রাখতে ধর্মকে হাতিয়ার বানিয়ে বাঙালি মুসলমানকে আরও শত বছরের ফেরে ফেলে দিয়েছে। তাই দেখা যায় আরজ আলী মাতুব্বরের মৃত মায়ের ছবি তোলার ‘দোষে’ তাকে নিগৃহীত হতে হয়, কেবল তা-ই নয়, ফতোয়ার কারণে মাকে কবরস্থ করতেও অনেক বেগ পেতে হয়। (সম্পূর্ণ…)

সাখাওয়াত টিপুর গুচ্ছ কবিতা

সাখাওয়াত টিপু | ২৮ জুন ২০১৩ ৪:২১ অপরাহ্ন

যাও তুমি গর্ভে গর্ভে

ওই ডালে পাতা নাই, শুধু আছে ফুল
ভালোবাসব বলেই জাগিতেছে কুল।
আমরা কাঙাল নই গেরিলা আগুনে
সব মুখ লাল হচ্ছে কেমন ফাগুনে?
আমাদের তাড়া নাই, ভারানত মন
দেহ যায় শাখামূলে পরতে পরতে
যদি তুমি রাষ্ট্র হও, হইও না ভাতার
ফলে ফলে টলে প্রেম এমনি বাহার! (সম্পূর্ণ…)

গল্পের রূপ-বৈচিত্র্য

মণীশ রায় | ২৬ জুন ২০১৩ ১০:৪৭ অপরাহ্ন

আমরা এত বেশি গল্পের ভেতর নিত্যদিন বসবাস করি যে গল্পের অভাব হবার কথা নয়। আমাদের ডানে গল্প , বাঁয়ে গল্প , মাথার উপর দিয়ে এরোপ্লেনের মতো উড়ে যাওয়া গল্প, পায়ের নীচে পিষ্ট হওয়া শুকনো কিংবা ভেজা ঘাসের মতো শত-সহস্র গল্প।
তবু ইদানীং আমাদের জীবনে গল্প-টল্পগুলো খুব একটা জমছে না। গল্প বলতে গেলেই পাঠকের সারি থেকে কেউ একজন চেঁচিয়ে বলে ওঠেন,‘ গল্প ছাড়েন ভাই। জীবনে নেমে আসেন। গল্প লিখে টিখে কিছু হবে না। হয়নি কোনদিন। ’
বেচারা গল্পকার! শুরুতেই পাঠক তাকে মিথ্যেবাদী বানিয়ে দিল।
কিন্তু তিনিও দমবার পাত্র নন মোটে। তার ভেতর গল্পগুলো ভাতের মতো বলক তুলছে । তিনি গল্প বলে ছাড়বেনই। পাঠক শুনতে চাইছে না, তবু।
তিনি কদিন ও হেনরি পড়লেন। মোপাসাঁও বাদ যায়নি। রবীন্দ্রনাথ তো সংগে রয়েছেনই। গল্পের শুরু ও সমাপ্তির ভেতর যে চমক তা তাকে এতটাই আকৃষ্ট করে ফেলল যে লিখতে শুরু করে দিলেন। (সম্পূর্ণ…)

জলে ভাসা পদ্য

ঝর্না রহমান | ২৫ জুন ২০১৩ ২:২৩ অপরাহ্ন

১.
ছড়ানো রয়েছে রোদের শিফনে ছায়া কারুকাজ
আলতো ছোঁয়ায় খুলছে আকাশ শাড়িটির ভাঁজ
আষাঢ় খুলেছে বহুদিন পরে নীল স্নানঘর
মেঘগাঁও থেকে আসিতেছে দ্রুত জলকারিগর। (সম্পূর্ণ…)

আরিফ নজরুলের গুচ্ছ কবিতা

আরিফ নজরুল | ২৩ জুন ২০১৩ ৬:৫৮ অপরাহ্ন

বৃত্তের বাইরে

বৃত্তের ভেতরে আর পরান টেকে না
কেবলই বৃত্ত ভাঙতে ইচ্ছে করে
ইচ্ছেরা সীমা লঙ্ঘন করে বারংবার
চাই তোমার শর্তহীন অনুমোদন। (সম্পূর্ণ…)

যে শালিখ মরে যায় কুয়াশায়: কবি খোন্দকার আশরাফ হোসেন স্মরণ

তুষার গায়েন | ২১ জুন ২০১৩ ৯:৩১ অপরাহ্ন

কবি খোন্দকার আশরাফ হোসেনের মৃত্যু আমাকে যতটা বিষণ্ণ ও শোকাহত করে রেখেছে তার অধিক আচ্ছন্ন হয়ে আছি এক ছটফট করা অস্থিরতায়। সেটা যে তাঁর সাথে দীর্ঘকালের কাব্যসম্পর্ক বা ব্যক্তিগত ভালোমন্দের ঘনিষ্ঠতাই কারণ তা নয়; বরং একজন সৃষ্টিশীল, কর্মিষ্ঠ মানুষের অকাল প্রস্থানে প্রকৃতির কোথাও যেন প্রতিকারহীন এক অন্যায় সংঘটিত হয়েছে ভেবে আমার মন কোনোভাবেই তা মানতে চাইছে না। এখন আরো স্পষ্ট হয়ে উঠেছে যে তাঁর অকালমৃত্যু শুধু অদৃশ্য প্রকৃতির ইশারায় নয়, বরং মনুষ্য চিকিৎসকের অবহেলাও দৃশ্যমান, দণ্ডযোগ্য কারণ। জীবনের সমান চুমুকে যার প্রত্যয় ও অধিকার, তিনি কেন তৃষ্ণার্ত থেকে অকালে বিদায় নেবেন এবং আমাদের রেখে যাবেন নিদারুণ আফসোসে! (সম্পূর্ণ…)

স্বাগতবিদায়

পিয়াস মজিদ | ২০ জুন ২০১৩ ১০:১৩ অপরাহ্ন

আর শোক নয়
কেননা নোটনের জন্য
অনেক শোক জমা করেছেন
খোন্দকার আশরাফ হোসেন। (সম্পূর্ণ…)

আশরাফ স্যার, আমরা অপেক্ষায় আছি

দ্রাবিড়া আঞ্জুমান হুদা | ১৯ জুন ২০১৩ ২:০৭ অপরাহ্ন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে পড়ার সুযোগ পাওয়ার পরপরই আমার বাবা আমাকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন খোন্দকার আশরাফ হোসেন স্যারের সঙ্গে। কলাভবনে টিচার্স লাউঞ্জে বসে থাকা বাবরি চুলের দীর্ঘকায় মানুষটির আকর্ষণীয় বাচনভঙ্গির কথা ততদিনে আমি বহুবার শুনে ফেলেছি একই বিভাগ থেকে পাশ করে যাওয়া আমার বড় আপুদের কাছ থেকে। সেদিন স্যারের সামনে বসে মুগ্ধ হয়ে স্যারের কথা শুনেছিলাম আর ভেবেছিলাম, কবে তার ক্লাস পাব! পেলাম ২য় বর্ষে উঠে। সেমিস্টারের যাঁতাকল সত্ত্বেও romantic poetry কোর্সটি স্যার পড়ালেন চমৎকার! ক্লাসে মনে হয় এমন কেউ ছিল না যে স্যারের লেকচার মুগ্ধ হয়ে শোনেনি। (সম্পূর্ণ…)

খোন্দকার আশরাফ হোসেনঃ জীবনের সমান কবি

কামরুল হাসান | ১৮ জুন ২০১৩ ৩:২১ অপরাহ্ন

সকলকে বিমূঢ় ও শোকস্তব্ধ করে ১৬ জুন রোববার সকালে নিরালোকে চলে গেলেন কবি খোন্দকার আশরাফ হোসেন। প্রথমটায় মনে হল ভুল শুনেছি, বিশ্বাস হয়নি, কেননা তাঁর যাওয়ার সময় হয়নি, কত কাজ পড়ে ছিল সৃষ্টিশীল দু’হাতে, সেসব ছেড়ে কী করে চলে যান তিনি? তাঁর মৃত্যু এত অপ্রত্যাশিত যে কিছুক্ষণ স্তব্ধ হয়ে বসেছিলাম, চোখ ভরে উঠছিল জলে, আর মনে পড়ছিল তাঁর সাথে কাটানো অসংখ্য স্মৃতিময় দিনের কথা। কী প্রাণবান মানুষ ছিলেন শক্তিমান এ কবি! (সম্পূর্ণ…)

কবি খোন্দকার আশরাফ হোসেন: মরণোত্তর শ্রদ্ধা

আহমাদ মাযহার | ১৭ জুন ২০১৩ ২:০৪ অপরাহ্ন

খোন্দকার আশরাফ হেসেনের সঙ্গে আমার পরিচয় হয়েছিল গত শতাব্দীর আশির দশকের প্রথম ভাগে, সম্ভবত ১৯৮৩ সালে, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে। সম্ভবত যে বলছি তার কারণ তখন আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হাকিম চত্বরে, বাংলা একাডেমীতে কবি ওবায়দুল ইসলামের আড্ডায়, শিল্পকলা একাডেমীতে কবি আল মাহমুদের কক্ষে, নিউ মার্কেটের বইয়ের দোকান নলেজ হোমে, স্টেডিয়ামের বইয়ের দোকান ম্যারিয়েটায়, ভারতীয় তথ্যকেন্দ্র লাইব্রেরিতে, জাতীয় গ্রন্থ কেন্দ্রে কবি কায়সুল হকের কক্ষে, দৈনিক বাংলায় আফলাতুন বা কবি আহসান হাবীবের সম্পাদকীয় দপ্তরে প্রচুর ঘোরাঘুরি করতাম। এইসব জায়গার কোথাও তাঁর সঙ্গে দেখা হয়ে থাকতে পারে। (সম্পূর্ণ…)

যোজনের জীবনকাব্য

নুরুন্নাহার শিরীন | ১৫ জুন ২০১৩ ৩:১৪ অপরাহ্ন

১। বলছি জীবনভাই,

দু’দন্ড দাঁড়াও ভাই।
আমার অনেক বাকি –
এখনও খুঁজে ফিরছি ফিনিক্স পাখি!

এখনও ভালোমন্দ যা দেখি তারেই জলছবি করি!
দেখি – ছবিগুলি অলৌকিক উড়ালের পরী!
দেখে-দেখে অদেখায়
অশ্রুত আশ্চর্য ছুঁয়ে পাই জীজিবিষা – এ ধূলিকাবেলায়! (সম্পূর্ণ…)

গীতাঞ্জলি’র অনুবাদ এবং রবির উদয়াস্ত

আলী আহমদ | ১৩ জুন ২০১৩ ৭:৪৫ অপরাহ্ন

রবীন্দ্রনাথের ধর্মমনস্কতা গবেষণালব্ধ কোনো বিষয় নয়, এটি তাঁর আশৈশব লালিত একটি আত্মিক চেতনা। শৈশবে মা-হারানো কনিষ্ঠ সন্তান রবীন্দ্রনাথ ধার্মিক পিতা দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুরের সঙ্গে অনেক ঘুরে বেড়িয়েছেন। বাবার ধর্মভ্রমণের সার্বক্ষণিক সঙ্গী না হলেও অনেক সময়েরই সহচর হয়েছেন তিনি সেই ছোটবেলা থেকেই। তারপর তাঁর কৈশোরের সময় কেশবচন্দ্র সেনের বিদ্রোহের ফলে ব্রাহ্মসমাজ যখন দুভাগে ভাগ হয়ে গেল, আর ‘আদি ব্রাহ্মসমাজ’ নামীয় অংশের আচার্য হলেন দেবেন্দ্রনাথ, তখন সেই কিশোর বয়সেই ঐ অংশের সচিবের দায়িত্ব পড়ল রবীন্দ্রনাথের কাঁধে। (সম্পূর্ণ…)

পরের পাতা »

Disclaimer & Privacy Policy  |  About us  |  Contact us

© bdnews24.com